পাতা:কাব্যগ্রন্থ (পঞ্চম খণ্ড).pdf/২১৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ক্ষুধিত চিতাগ্নিরূপে উঠেছে জাগিয়া ; আজি রাত্রে সে রাত্রির অসমাপ্ত ক্রিয়া হবে সমাপন । বিনায়ক যাও বৎসে, যাও ফিরে তব পুত্র কাছে, তব শোকতপ্ত নীড়ে । দারুণ কর্তব্য মোর নিঃশেষ করিয়া করেছি পালন,—যাও তুমি —অয়ি প্রিয়া বৃথা করিতেছ ক্ষোভ । যে নব শাখারে আমাদের বৃক্ষ হ’তে কঠিন কুঠারে ছিন্ন করি নিয়ে গেল বনান্তর ছায়ে, সেথা যদি বিশীণা সে মরিত শুকায়ে অগ্নিতে দিতাম তারে ; সে যে ফলেফুলে নব প্রাণে বিকশিত, নব নব মূলে নুতন মৃত্তিকা ছেয়ে। সেথা তা’র প্রীতি, সেথাকার ধৰ্ম্ম তা’র, সেথাকার রীতি । অন্তরের যোগসূত্র ছিড়েছে যখন তোমার নিয়মপাশ নিৰ্জ্জীব বন্ধন ধৰ্ম্মে বধিছে না তারে, বাধিতেছে বলে । ছেড়ে দাও, ছেড়ে দাও !—যাও বৎসে চলে,” ) సెని