পাতা:কাব্যগ্রন্থ (পঞ্চম খণ্ড).pdf/৩৩৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দেবতার গ্রাস রহিল সে তরণী আঁকড়ি। অবশেষে ব্রাহ্মণ করুণ স্নেহে কহিলেন হেসে “থাক থাক সঙ্গে যাক ৷” মা রাগিয়া বলে “চল তোরে দিয়ে আসি সাগরের জলে ।” যেমনি সে কথা গেল আপনার কানে অমনি মায়ের বক্ষে অনুতাপবাণে বিধিয়া কাদিয়া উঠে। মুদিয়া নয়ন “নারায়ণ নারায়ণ” করিল স্মরণ । পুত্রে নিল কোলে তুলি,—তা’র সর্ববদেহে করুণ কল্যাণ হস্ত বুলাইল স্নেহে । মৈত্র তারে ডাকি ধীরে চুপি চুপি কয় “ছি ছি ছি, এমন কথা বলিবার নয়।” রাখাল যাইবে সাথে স্থির হ’ল কথা,— অন্নদা লোকের মুখে শুনি সে বারত, ছুটে আসি বলে “বাছা, কোথা যাবি ওরে ?” রাখাল কহিল হাসি “চলিমু সাগরে, আবার ফিরিব মাসী।” পাগলের প্রায় অন্নদা কহিল ডাকি “ঠাকুর মশায়, বড় যে দুরন্ত ছেলে রাখাল আমার,— ○ミQ