পাতা:কাহিনী-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/১২১

এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।
১১৮
কাহিনী

দেখাচ্ছে যেন হীরের টোপর!
হাতে কী রয়েছে সােনার বাক্সে
দেখতে পারি কি? আচ্ছা, থাক্‌ সে।
এত হীরে সোনা কারাে তাে হয় না-
ওগুলাে তাে নয় গিলটি গয়না?
এগুলি তাে সব সাঁচ্চা পাথর?
গায়ে কী মেখেছ, কিসের আতর?
ভুর ভুর করে পদ্মগন্ধ-
মনে কত কথা হতেছে সন্ধ!
বােসো বাছা, কেন এলে এত রাতে?
আমারে তো কেউ আস নি ঠকাতে?
যদি এসে থাকো, ক্ষীরিকে তা হলে
চিনতে পারাে নি সেটা রাখি ব’লে।
নাম কী তােমার বলাে দেখি খাঁটি-
মাথা খাও, বােলো সত্য কথাটি।

লক্ষ্মী


একটা তাে নয়, অনেক যে নাম।

ক্ষীরো


হাঁ হাঁ, থাকে বটে স্বনাম বেনাম
ব্যাবসা যাদের ছলনা করা,
কখনো কোথাও পড় নি ধরা?

লক্ষ্মী


ধরা পড়ি বটে দুই-দশ দিন,