পাতা:কাহিনী-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/১৩০

এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।
১২৭
লক্ষ্ণীর পরীক্ষা


তখনি শূলেতে চড়িয়ে তারে
নাকে কাঠি দিয়ে হাঁচিয়ে মারে।

ক্ষীরো


সোনার বাটায় পান দে তারিণী।
কোথা গেল মোর চামরধারিণী?

তারিণী


চলে গেছে ছুঁড়ি। সে বলে, ‘মাইনে
চেয়ে চেয়ে তবু কিছুতে পাই নে।’

ক্ষীরো


ছোটোলোক বেটি হারামজাদি
রানীর ঘরে সে হয়েছে বাঁদি,
তবু মনে তার নেই সন্তোষ—
মাইনে পায় না ব'লে দেয় দোষ!
পিঁপড়ের পাখা কেবল মরতে।
মালতী!

মালতী


আজ্ঞে!

ক্ষীরো


মাগিরে ধরতে
পাঠাও আমার ছ-ছয় পেয়াদা—
না না, যাবে আরো দুজন জেয়াদা।
কী বল মালতী!