পাতা:কাহিনী-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/১৯

এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।
১৬
কাহিনী


দেবতারে মাের কেহ তাে চাহেনি,
নিয়ে গেল সবে মাটির ঢেলা-
দূরদুর্গম মনােবনবাসে
পাঠাইল তাঁরে করিয়া হেলা।
সেইখানে এল আমার তাপস,
সেই পথহীন বিজন গেহ-
স্তব্ধ নীরব গহন গভীর
যেথা কোনােদিন আসে নি কেহ।
সাধকবিহীন একক দেবতা
ঘুমাতেছিলেন সাগরকূলে-
ঋষির বালক পুলকে তাঁহারে
পূজিলা প্রথম পূজার ফুলে।
আনন্দে মাের দেবতা জাগিল,
জাগে আনন্দ ভকতপ্রাণে-
এ বারতা মাের দেবতা তাপস
দোঁহে ছাড়া আর কেহ না জানে।


কহিলা কুমার চাহি মাের মুখে,
‘আনন্দময়ী মুরতি তুমি,
ফুটে আনন্দ বাহুতে তােমার,
ছুটে আনন্দ চরণ চুমি।’
শুনি সে বচন, হেরি সে নয়ন,
দুই চোখে মাের ঝরিল বারি।