প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:গল্পগুচ্ছ (তৃতীয় খণ্ড).djvu/১৩৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


হৈমন্তী もS為 একখানি সাদাসিধা মখ, সাদাসিধা দটি চোখ, এবং সাদাসিধা একটি শাড়ি। কিন্তু, সমস্তটি লইয়া কী যে মহিমা সে আমি বলিতে পারি না। যেমন-তেমন একখানি চৌকিতে বসিয়া, পিছনে একখানা ডোরা-দাগ-কাটা শতরঞ্চ ঝোলানো, পাশে একটা টিপাইয়ের উপরে ফলদানিতে ফলের তোড়া। আর, গালিচার উপরে শাড়ির বাঁকা পাড়টির নীচে দুখানি খালি পা। পটের ছবিটির উপর আমার মনের সোনার কাঠি লাগিতেই সে আমার জীবনের মধ্যে জাগিয়া উঠিল। সেই কালো দটি চোখ আমার সমস্ত ভাবনার মাঝখানে কেমন করিয়া চাহিয়া রহিল। আর, সেই বাঁকা পাড়ের নিচেকার দরখানি খালি পা আমার হৃদয়কে আপন পদ্মাসন করিয়া লইল । পঞ্জিকার পাতা উলটাইতে থাকিল; দটা-তিনটা বিবাহের লগ্ন পিছাইয়া যায়, *বশরের ছয়টি আর মেলে না। ও দিকে সামনে একটা অকাল চার-পাঁচটা মাস দিকে ঠেলিয়া দিবার চক্ৰান্ত করিতেছে । শবশরের এবং তাঁহার মনিবের উপর রাগ হইতে লাগিল । যা হউক, অকালের ঠিক পাবলগনটাতে আসিয়া বিবাহের দিন ঠেকিল। সেদিনকার সানাইয়ের প্রত্যেক তানটি যে আমার মনে পড়িতেছে। সেদিনকার প্রত্যেক মহেতাটি আমি আমার সমস্ত চৈতন্য দিয়া পশ করিয়াছি। আমার সেই উনিশ বছরের বয়সটি আমার জীবনে অক্ষয় হইয়া থাক। * বিবাহসভায় চারি দিকে হট্টগোল; তাহারই মাঝখানে কন্যার কোমল হাতখানি আমার হাতের উপর পড়িল । এমন আশচষ আর কী আছে । আমার মন বারবার করিয়া বলিতে লাগিল, “আমি পাইলাম, আমি ইহাকে পাইলাম।" কাহাকে পাইলাম। এ যে দলভ, এ যে মানবী, ইহার রহস্যের কি অন্ত আছে । আমার বশরের নাম গৌরীশংকর। যে হিমালয়ে বাস করিতেন সেই হিমালয়ের তিনি যেন মিতা। তাঁহার গাম্ভীষের শিখরদেশে একটি স্থির হাস্য শত্র হইলা ছিল। " আর, তাঁহার হাদয়ের ভিতরটিতে সেনহের যে-একটি প্রস্রবণ ছিল তাহার সন্ধান যাহারা জানিত তাহারা তাঁহাকে ছাড়িতে চাহিত না । কম ক্ষেত্রে ফিরিবার পবে আমার বশর আমাকে ডাকিয়া বলিলেন, “বাবা, আমার মেয়েটিকে আমি সতেরো বছর ধরিয়া জানি, আর তোমাকে এই কষ্টি দিন মাত্র জানিলাম, তব তোমার হাতেই ও রহিল। ষে ধন দিলাম, তাহার মাল্য যেন বঝিতে পার, ইহার বেশি আশীবাদ আর নাই।” “বেহাই, মনে কোনো চিন্তা রাখিয়ো না । তোমার মেয়েটি যেমন বাপকে ছাড়িয়া আসিয়াছে এখানে তেমনি বাপ মা উভয়কেই পাইল ।” তাহার পরে শ্বশুরমশায় মেয়ের কাছে বিদায় লইবার বেলা হাসিলেন; বলিলেন, “বড়ি, চলিলাম। তোর একখানি মাত্র এই বাপ, আজ হইতে ইহার যদি কিছ খোওয়া थाम्न वा झुन्त्रि थाम्न वा नष्प्ले श्ख्न आभि उाशन्न छमा माग्नौ नश्ले ।” মেয়ে বলিল, “তাই বই-কি। কোথাও একটা যদি লোকসান হয় তোমাকে তার ক্ষতিপরণ করিতে হইবে।”