পাতা:গীতাঞ্জলি - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/১৬৬

এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।
১৫৪
গীতাঞ্জলি
 

১৩৫

যেন  শেষ গানে মাের সব রাগিণী পূরে,-
আমার সব আনন্দ মেলে তাহার সুরে ।
যে আনন্দে মাটির ধরা হাসে
অধীর হয়ে তরুলতায় ঘাসে,
যে আনন্দে দুই পাগলের মত
জীবন-মরণ বেড়ায় ভুবন ঘুরে-
সেই আনন্দ মেলে তাহার সুরে ।

যে আনন্দ আসে ঝড়ের বেশে,
ঘুমন্ত প্রাণ জাগায় অট্ট হাসে।
যে আনন্দ দাঁড়ায় আঁখি জলে
দুঃখব্যথার রক্ত শতদলে,
যা আছে সব ধূলায় ফেলে দিয়ে
যে আনন্দে বচন নাহি ফুরে-
সেই আনন্দ মেলে তাহার সুরে

২২ শ্রাবণ ১৩১৭