পাতা:গীতিমাল্য-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/২৩

এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।



নামহারা এই নদীর পারে
ছিলে তুমি বনের ধারে——
বলে নি কেউ আমাকে।
শুধু কেবল ফুলের বাসে,
মনে হ’ত, খবর আসে—
উঠত হিয়া চমকে।
শুধু যেদিন দখিন-হাওয়ায়
বিরহ-গান মনকে গাওয়ায়
পরান-উনমাদনি,
পাতায় পাতায় কাঁপন ধরে,
দিগন্তরে ছাড়িয়ে পড়ে
বনান্তরের কাঁদনি,
সেদিন আমার লাগে মনে——
আছ যেন কাছের কোণে
একটুখানি আড়ালে,
জানি যেন সকল জানি,
ছুঁতে পারি বসনখানি
একটুকু হাত বাড়ালে॥

১৩