পাতা:গৌড়রাজমালা.djvu/৩৫

এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।
গৌড়াধিপ শশাঙ্ক।

দ্রব্য মধ্যে বহুসংখ্যক হস্তী, দ্রুতগামী অশ্ব, নানাবিধ অলঙ্কার, ধনপূর্ণ কুম্ভ এবং নিগড়াবদ্ধ কয়েদীগণ ছিল।[১] ভণ্ডি শিবিরে উপনীত হইলে, হর্ষ তাঁহাকে ভ্রাতৃ-মরণবৃত্তান্ত জিজ্ঞাসা করিলেন। ভণ্ডি যথাযথ সমুদায় বৃত্তান্ত বর্ণন করিলেন। অনন্তর নরপতি তাঁহাকে জিজ্ঞাসা করিলেন,—‘রাজ্যশ্রীর সংবাদ কি?’ (ভণ্ডি) পুনরায় বলিলেন,—“দেব! আমি লোকের মুখে শুনিতে পাইয়াছি, রাজ্যবর্দ্ধন স্বৰ্গারোহণ করিলে, এবং গুপ্ত নামক ব্যক্তি কর্ত্তৃক কান্যকুব্জ অধিকৃত হইলে, রাজ্ঞী রাজ্যশ্রী কারাগার হইতে বহির্গত হইয়া, [সানুচরী] বিন্ধ্যারণ্যে প্রবেশ করিয়াছিলেন। তাঁহার অনুসন্ধানে অনেক লোক প্রেরিত হইয়াছে, কিন্তু কেহ এখনও প্রত্যাগত হয় নাই।”[২] রাজ্যশ্রীর কারামুক্তি-কাহিনী অষ্টম উচ্ছ্বাসে আরও একটু বিস্তৃতভাবে বর্ণিত হইয়াছে। হর্ষ যখন বিন্ধ্যারণ্যে ভগিনীর সাক্ষাৎ লাভ করিলেন, তখন “অনুচরিগণের নিকট হইতে ভগিনীর কারাবাস হইতে আরম্ভ করিয়া গৌড়াধিপের আক্রমণকালে গুপ্ত নামক কুলপুত্র-কর্ত্তৃক কান্যকুব্জের কারাগার হইতে তাঁহার নিষ্কাশন, কারা-বহির্গত হইয়া রাজ্যবর্দ্ধনের মৃত্যু-সংবাদ শ্রবণ, শুনিয়া আহার ত্যাগ, অনাহারে বিন্ধ্যারণ্যে ভ্রমণক্লেশ, এবং হতাশ হইয়া অগ্নি-প্রবেশের উদ্যোগ পর্য্যন্ত সমস্ত বৃত্তান্ত শ্রবণ করিয়াছিলেন।”[৩]

 এখানে স্পষ্টই দেখিতে পাওয়া যায়,—রাজ্যবর্দ্ধন, মালব-রাজকে পরাজিত করিয়া, নিজকে নিরাপদ জ্ঞান করিয়া, যুদ্ধ-লব্ধ গজ, অশ্ব, দ্রব্যাদি এবং বন্দিগণকে সেনাপতি ভণ্ডির সহিত স্থানীশ্বরে প্রেরণ করিয়াছিলেন; এবং স্বয়ং ভগিনীর উদ্ধার-সাধনের জন্য কান্যকুব্জ যাত্রা করিয়াছিলেন। কান্যকুব্জের নিকটবর্ত্তী হইয়াই, হয়ত, রাজ্যবর্দ্ধন সসৈন্য গৌড়াধিপ কর্ত্তৃক স্বীয় পথ রুদ্ধ দেখিতে পাইয়াছিলেন। রাজ্যবর্দ্ধনের দশ সহস্ৰ অশ্বারোহীর মধ্যে কতক মালবপতির সহিত যুদ্ধে নিহত হইয়াছিল, এবং কতক লুণ্ঠিত দ্ৰব্য-রক্ষার্থ ভণ্ডির সহিত প্রেরিত হইয়াছিল। সুতরাং রাজ্যবর্দ্ধনের সহিত তখন হয়ত ছয় সাত হাজারের অধিক অশ্বারোহী ছিল না। পক্ষান্তরে, গৌড়াধিপ ইহা অপেক্ষা অনেক অধিক সেনাবল না লইয়া, কান্যকুব্জের মত দূরদেশ-জয়ে যাত্রা করিতে সাহসী হন নাই। সুতরাং গৌড়াধিপের সম্মুখীন হইয়া যুদ্ধ করিয়া থাকিলে, রাজ্যবর্দ্ধন হয় যুদ্ধক্ষেত্রে ধৃত হইয়াছিলেন, বা আত্মসমর্পণ করিয়াছিলেন;—আর না হয়, পরাজয় নিশ্চিত

  1. হর্ষচরিতম্, সপ্তম উচ্ছ্বাসঃ, ৬০৩-৬০৫ পৃঃ।
  2. “समतिक्रान्ते च कियत्यपि काले भ्रातृमरण-वृत्तान्त मप्राक्षीत्। अथ अकथयच्च यथावृत्त मखिलं भण्डिः। अथ नरपतिः तमुवाच राज्यश्री-व्यतिकरः क इति। स पुन रवादीत् देव! देवभूयं गते देवे राज्यवर्द्धने, गुप्तनाम्ना च गृहीते कुशस्थले देवी राज्यश्रीः परिभ्रश्य बन्धनात् विन्ध्याटवीं सपरिवारा प्रविष्टा इति लोकतो वार्त्ता मृशृणवम्। अन्वेष्टारस्तु तां प्रति प्रभूताः प्रहिता जना, न अद्यापि निवर्त्तन्त इति।” ६०२-६०३ पृः।
  3. “बन्धनात् प्रभृति विस्तरतः स्वसुः कान्यकुब्जात् गौड़-सम्मुमं गुप्तितो गुप्तनाम्ना कुलपुत्रेण निष्कासनं, निर्गतायाश्च राज्यवर्द्धन-मरण-श्रवणं, श्रुत्वा आहार-निराकरण मनाहार-पराहतायाश्च विन्ध्याटवी-पर्य्यटन-खेदं, जातनिर्वेदाया पावक-प्रवेशोपक्रमणं यावत् सर्व मशृणोत् व्यतिकरं परिजनतः। ६६४ पृः।