পাতা:ঘর-পোড়া লোক (শেষ অংশ) - প্রিয়নাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/৪৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

ঘর-পােড়া লােক।

৪৫


লাগিলেন। পরিশেষে নিজেও থানা হইতে বহির্গত হইয়া সেই গোরন অভিমুখে গমন করিলেন।  সেই স্থানে গমন করিয়া দেখিলেন, তাঁহার প্রেরিত প্রহরী গণ প্রায় কার্য্য শেষ করিয়া আনিয়াছে। একটা মৃতদেহ কবর হইতে বাহির করিয়া উপরে রাখিয়াছে, অপরটী কবর ভিতরেই আছে। কিন্তু তাহার মৃত্তিকা খনন করা হইয়াছে।

 এই অবস্থা দেখিয়া দারোগা সাহেব পুনরায় থানায় প্রত্যাবর্তন করিলেন। তাহার আসিবার কিয়ৎক্ষণ পরেই প্রহরীগণ দুইটা মৃতদেহের সহিত উপস্থিত হইল। আসিয়া দারোগা সাহেবকে জিজ্ঞাসা করিল, “এই মৃতদেহ কোথায় রাখিয়া দিব?”

 উত্তরে দারোগা সাহেব কহিলেন, “উভয় মৃতদেহই হাজতের ভিতর রাখিয়া দেও!” প্রহরীগণ তাহাই করিল। তখন তিনি তাহাদিগকে জিজ্ঞাসা করিলেন, “কবর হইতে মৃতদেহ উঠাইবার সময় বা উহা বহন করিয়া থানায় আনিবার সময়, অপর আর কেহ দেখিয়াছে কি?”

 উত্তরে প্রহরীগণ কহিল, “না মহাশয়। কেহই দেখে নাই। দেখিলেও, যেরূপ ভাবে আমরা উহাদিগকে আনিয়াছি, তাহাতে কেহই কোনরূপ সন্দেহ করিতে পারিবে না।”

 দারোগা। যাহা হউক, আমরা পাঁচজন ব্যতীত এই মৃতদেহের কথা আর কেহই অবগত নহে। সাবধান! এ কথা কোনরূপে যেন কেহই জানিতে না পারে। অপরে জানিতে পারিলে, আমারও চাকরী থাকিবে না, তোমাদিগেরও চাকরী থাকিবে না। অধিকন্তু জেলে যাইতে হইবে॥

  না মহাশয়! এ কথা কেহই জানিতে