প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:চন্দ্রনাথ-শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/২৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ጏዓ পঞ্চম পরিচ্ছেদ পরদিন হইতে হরিবালা প্রায়ই আসেন, শক্ত কৰ্ম্ম থাকিলেও একবার হাজির হইয়া যান। ক্রমশঃ পাতানো সম্বন্ধ গাঢ় হইয়া আসিল । সময়ে সরযুও ভুলিয়া গেল যে, হরিবালা তাহার সমবয়সী। নছে, কিম্বা এই গলায় গলায় মেশামেশি সকলের কাছে তেমন স্বন্দর দেখিতে হয় না। এই অন্তরঙ্গত হরকালীর কেমন লাগিত বলিতে পারি না,কিন্তু চন্দ্রনাথের বেশ লাগিত। স্ত্রীর সহিত এ বিষয়ে প্রায়ই তাহাও কথাবাৰ্ত্ত হইত। ঠানূদিদির এই হৃদ্যতায় তিনি আমোদবোধ করিতেন। আরও একটু কারণ ছিল। জনা স্ত্রীকে বড় জেং করিতে,সমস্ত হয়ে জুড়িয়া ভালবাসা না থাকিলেও ফ্রেন্থের অভাব ছিল না। তিনি মনে করিতেন,সকলের ভাগেই একরূপ স্ত্রী मिल માં ੇ বন্ধু কাহারে বা প্রভু। তাছার ভাগে যদি একটি পুণ্যবতী,পবিত্র, . সাধী এবং স্নেহময়ী দাসী মিলিয়াছেত তিনি অসুখী হইয়া কি লাভ " করিবেন? তাহার উপর একটা কথা প্রায়ই র্তাহার মনে হয় সেটা । সরযুর বিগত দিনের দুঃখের কাহিনী। শিশুকালটা তাহার বড় । দুঃখেই অতিবাহিত হইয়াছে। দুঃখিনীর কষ্ট হয় ত সারা জীবনটা : দুঃখেই কাটাইত ; হয় ত বা এতদিনে কোন দুর্ভাগ্য দুশ্চরিত্রের হাতে পড়িয়া চক্ষের জলে ভাসিত, না হয় দাসীবৃত্তি করিতে গিয়া শত অত্যাচার উৎপীড়ন সহ করিত তা ছাড়া এত অধিক রূপযৌবন লইয়া নরকের পথও দুরূহ নহে ; তাহা হইলে ? এই কথাটা মনে উঠিলেই চন্দ্রনাথ গভীর করুণায় সরযুর ' লক্ষিত মুখখানি ভুলিয়া ধরিয়া জিজ্ঞাসা করিডেন, আচ্ছ সন্ম o 3