প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:চন্দ্রনাথ-শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/৬৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


छटानांध وية চন্দ্রনাথের মনে হইল কথাটা বড় শক্ত বলা হইয়াছে। সরযু তখনই তাছার চক্ষু মুছাইয়া দিয়া আদর করিয়া বলিল, মনে করে দেখ কোনদিন একটা পরিহাস করি নি, তাই যাবার দিনে আঙ্গ একটা তামাসা করলাম, রাগ করো না । তাঁহার পর কহিল, যা কিছু ছিল, সমস্ত বন্ধ করে আলমারীতে রেখে গেলাম, দেখে, शिझिभिहिं जांभांब्र ७कछि छिनिय७ cशन नहै न श्झ । . চন্দ্রনাথ চাহিয়া দেখিল নিরাভরণা সরযুর হাতে গুৰু চার-পাচ গাছি কাচের চুড়ি ছাড়া জার কিছু নাই। সরযুর এ মূৰ্ত্তি তাহার দুই চোখে শূল বিদ্ধ করিল, কিন্তু কি বলিবে সে ? আজ ছুখাম অলঙ্কার পরিয়া যাইবার প্রস্তাব করির কি করিয়া সে এই দেবীর প্রতিমূর্তিটিকে অপমান করিবে। সরযুগলায় আঁচল দিয়া প্ৰণাম করিয়া পদধূলি মাথায় তুলিয়া লইয়া বলিল, আমি যাচ্চি বলে জনৰ্থৰ হুঃখ করেন, এতে তোমার হাত নেই, আমি তা জানি । চন্দ্রনাথ এতক্ষণ পৰ্যন্ত সহ করিয়াছিল, আর পারিল না, চুটিয়া পলাইয় গেল। , সন্ধ্যার পূৰ্ব্বে গাড়ীর সময়। ষ্ট্রেশনে বাইতে হইবে। বৃষ্টি । জাসিয়াছে বাটার বৃদ্ধ সরকার দুই-এক খানি কাপড় গামোছার ধরি কোচম্যানের কাছে গিয়া বসিল। সেই সীতা দেবীর কথা বোধ করি তাঁহার মনে পড়িয়াছিল, তাই চোখের জলও বড় এল. হইয়া গড়াইয় পড়িতেছিল। চক্ষু মুছিয়া মনে মনে কহিল, ভগবান, । আমি ভূত, তাই আজ আমার এই শাস্তি। : -* নাইবা বন যা লক্ষী দেশ মিষ্ঠার