প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:চন্দ্রনাথ-শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/৯১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চন্দ্রনাথ ৮২ यांनिग्नां७ अरभं जहेग्रा घाँट्रेऊ ! शांन कब्रिवांद्र जभग्न मनकाभ দেখিতে পাইতেন, সেই নিরাশ্রয় পশু-শাবকের সজল করুণ দৃষ্টি তাহার পানে চাহিয়া আছে ; তাছার পর সে বড় হইতে লাগিল । ক্রমে কুটির ছাড়িয়া প্রাঙ্গণে, প্রাঙ্গণ ছাড়িয়া পুষ্পকাননে, তাহার পর অরণ্যে, ক্রমে সুদূর অরণ্যপথে স্বেচ্ছামত বিচরণ করিয়া বেড়াইত। ফিরিয়া আসিবার নির্দিষ্ট সময় অতিক্রম হইলে রাজা ভরত উৎকণ্ঠিত হইতেন। সঘনে ডাকিতেন, আয়, আয়, আয় । তাহার পর কবি নিজে কাদিলেন, সকলকে কাদাইয়া উচ্ছ্বসিত কণ্ঠে গাছিলেন, কেমন করিয়া একদিন সে তাহার আজন্ম মায়াবন্ধন নিমিত্রে ছিন্ন করিয়া চলিয়া গেল—বনের পশু বনে চলিয়া গেল, মাছুষের ব্যথা বুঝিল না। বৃদ্ধ ভরত উচ্চৈঃস্বরে ডাকিলেন, ‘আয়, আর, আয় ? কেহ আসিল না, কেহ সে ব্যাকুল আহবানের উত্তর দিল না। তখন সমস্ত অরণ্য জন্বেষণ করিলেন, প্রতি কন্মরে কময়ে, প্রতি বৃক্ষতলে, প্রতি লতাবিতানে কঁাদিয়া ডাকিলেন, ‘জায়, আয়, আর!” কেহ আসিল না। এক দিন, দুই দিন, তিন দিন কাটিয়া গেল,কেহ আসিলন। প্রথমে তাহার জাহার-নিদ্রা বন্ধ हहेल, পূজাপাঠ ऍठिंद्रां গেল, তাহার পর ধ্যান, চিত্ত৷ সব সেই নিরুদেশ স্নেহাস্পদের পিছে পিছে অম্বুদ্ধেশ্ন বনপথে ছুটির ফিরিতে লাগিল। কৰি গাছিলেন, মৃত্যুর কাল ছায়া ভুলুষ্ঠিত ভরতের অঙ্গ অধিকার করিয়াছে, কণ্ঠ রুদ্ধ হইয়াছে, তথাপি তৃষিত ও ধীরে ধীরে কঁপিয়া উঠিতেছে। যেন এখনও তাৰিতেছে, ‘ফিরে আয়, क्रिइ जांद्र, क्रिा जांब्र !' . . . .