পাতা:চিঠিপত্র (সপ্তম খণ্ড)-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৩২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


社グ切* ১৭ এপ্রিল ১৯২৬ હૈં শান্তিনিকেতন কল্যাণীয়াসু তোমার চিঠিখানি পড়ে আমার মনে বড় বাজল । তুমি মনে করেছিলে তোমার আত্মাকে তৃপ্ত করবার মত কোনো সম্পদ আমার আছে । কিন্তু আমি পথের পথিক, গম্যস্থানের ডাক শুনি ; ঠিকানায় পৌছে কাউকে জোর করে ডাক দিতে পারি এমন শক্তি আমার নেই। আমার আছে বলবার ক্ষমতা, তাই বিধাতা আমাকে দিয়ে নানা কথাই বলিয়ে নেন— কোনো একটি বাণীতে আমার সকল বাণী সংহত করে সাধনার মন্দিরে আলো জালবার কাজে আমার তলব পড়ে নি। আমি গুরু না, রাষ্ট্রনেতা না,— আমি কবি, স্মৃষ্টির বিচিত্র খেলায় নানাছন্দে গড় খেলনা জোগাব, এই আমার কাজ । তাতে মানুষের যেটুকু আনন্দ সেইটুকুতেই আমার সার্থকতা। এই আমার স্বধৰ্ম্ম, আর সেই স্বধৰ্ম্মরক্ষার দায়িত্বই আমার । আমার কাছ থেকে রাষ্ট্রনৈতিক সুবুদ্ধি, কৰ্ম্মনৈতিক নৈপুণ্য যারা আশা করেছে তারা নিজে ভুল করেছে, অথচ আশাভঙ্গের দুঃখের জন্যে আমাকেই দায়ী করেছে। একদিন তুমি যখন আমাকে নানা সমস্যা নিয়ে প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করেছিলে তখন আমার মনের ভিতর থেকে তার উত্তর দেবার চেষ্টা করেছি, কেননা সেটা আমার কাজ । সেই জন্যে এ কাজে ডাক পড়লে আমাকে সাড়া দিতেই হয় । কিন্তু শুধু "ל צמ