পাতা:চিঠিপত্র (সপ্তম খণ্ড)-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৭৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


~ 3 o' ২• জানুয়ারি ১৯১১ હૈં জোড়াসাকো কল্যাণীয়াসু মা, তোমার চিঠি আজ পেয়েছি । শরীর আমার ভালই আছে । কিছু দিন পদ্মাতীরে বাস করে এসেছি। মাঘোৎসব উপলক্ষ্যে কয়েক দিন হল কলকাতায় ফিরে এসেছি । র্তার প্রেম তোমার চিত্তে অবতীর্ণ হয়ে তোমার অভাব অপূর্ণতা একেবারে ঘুচিয়ে দিক এই আমি তোমাকে আশীৰ্ব্বাদ করি। সেই আনন্দময়ের এই সংসারকে সৰ্ব্বত্র তুমি আনন্দময় করে দেখতে থাক । এখানকার সুখে দুঃখে মানে অপমানে তারই প্রকাশ এই কথা নিশ্চয় জেনে সমস্তই আনন্দের সঙ্গে বহন কর – প্রতিদিন যা কিছু পাবে সমস্তই শক্তির সঙ্গে ভক্তির সঙ্গে গ্রহণ কর । মনে মনে যখন-তখন বারম্বার তার নাম নিতে থাক— তিনিই যে চিরন্তন সত্য এই কথাটা স্মরণ করে রাখবার এই একমাত্র উপায় । জীবনকে ছোট হতে দিয়োনা— আপনাকে সেই অনন্ত সত্যের মধ্যে বড় করে জান – জীবনে মরণে তোমার হৃদয়টি র্তার মধ্যেই বিকশিত হয়ে উঠচে এই কথাটি অন্তরের মধ্যে সম্পূর্ণ উপলব্ধি করে পুজার ফুলের মত নিৰ্ম্মল পবিত্র হয়ে, পুণ্যের সৌন্দর্য্যে সৌগন্ধ্যে পরিপূর্ণ হয়ে ওঠ— পাপের কালিমা অন্তরে বাহিরে কোথাও তোমাকে স্পশ না করুক । আপনাকে তার কাছে নিবেদন করে দাও— তাহলে সংসারকে নূতন করে সুন্দর Y (t\r