পাতা:চিত্রাবলি - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৭৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অলঙ্কার। 罚 " যন্থপতির পড়াশুনা-সম্বন্ধে তাছার জননীর সহিত যে কথাবার্তা হইত, কমলা প্রায়ই তাহ শুনিতে পাইত। সেই সকল কথা শুনিত, আর কমল মনে মনে কত-কি কল্পনা করিত। কল্পনা বশে কখনও কখনও তাহার মনে হইত,—“আমার গায়ের দুই একথানা গহন বিক্রয় করিলে তাহার পড়ার ব্যয় কুলান হইতে পারে ন৷ কি ?” কিন্তু অনেক সময় কমলার সে মনের কল্পনা মনেই বিলীন হইত। মুখ ফুটিয়া তো কিছু কহিতে পারিত না ! সংসারে প্রতিদিনই সেই কথার আলোচনা হয়। প্রতিদিনই হতাশের বিষাদের নূতন নূতন লাঞ্ছনা-সম্পাতে যন্থপতির মুখ ঐ মলিন-ভাব ধারণ করে। প্রতিদিনই কমল সেই কথা শুনিতে পায়, প্রতিদিনই কমল সেই দৃপ্ত দেখিয়া থাকে ; প্রতিদিনই । কমলা সেই ভাবনায় বিভোর হইয়া পড়ে। কমলার কমল-হৃদয়ে তখন আন্দোলনের অবধি থাকে মা । স্থিরশাস্ত সৰ্ব্বংসহ বসুন্ধরার গর্ভে আন্দোলন উপস্থিত হইলে, ভূপৃষ্ঠ বিদীর্ণ হইয়া, জল-কর্দম-ধাতুনি:স্রব প্রভৃতি নির্গত হয়। কমলার প্রাণের ভিতর যে চিন্তানল জলিয়া উঠিল, যে আন্দোলন উপস্থিত হইল, { . তাহাই বা সহজে নিবৃত্ত হইবে কি প্রকারে । কমলা চাপিয়া চাপিয়াও চাপিতে পারিল না । শেষ একদিন, মধ্যম ননদিনীকে প্রাণের কথা সমস্তই খুলিয়া বলিল। মাকে । (শাশুড়ীকে) অনুরোধ জানাইবার জন্ত প্রার্থনা জানাইল । 盘、 . ᏠᏱ