পাতা:তীর্থরেণু.djvu/১০২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
তীর্থরেণু
 

বরফ ফুঁড়ে যে ফুল ফোটে পৰ্ব্বতের চূড়ায়,
প্রেমের লাগি আনতে পারি-আনতে পারি তায়;—
ওগো, মনের মানুষ!


বন-গীতি

তেতে যখন উঠছে কোঠা, যায় না ঘরে টেঁকা, '
তখন উচিত বেরিয়ে পড়া ‘দুই-প্রাণীতে-একা’!
চোরাই সোহাগ বেঁটে নেওয়া নয়কো নেহাৎ মন্দ,
বনের ভিতর ঘনায় যখন অল-বোখারার গন্ধ।

সূয্যি মামার পাইক গুলো বাইরে বিষম খুঁজচে,
পালিয়ে-ফেরা ফেরার দুটোর দুষ্টুমিটা বুঝচে !
ঝোপের খোপে কুলফি হাওয়া দিচ্চে হেথা জুড়িয়ে,
দুষ্টু দুটো পাড়ছে গাছের নিচ্চে তলার কুড়িয়ে।

দিনটা যখন যাচ্চে ভাল যায় সে ঘোড়া ছুটিয়ে,
দীর্ঘ ঘন ঘাসের রাশে পড়ল কে ওই লুটিয়ে?
নুইয়ে-পড়া তৃণ আবার দাঁড়ায় ঘন সার দিয়ে,
কিছু দেখা যায় না গো আর আঁধার বনের ধার দিয়ে।

আল্‌বার্ট গায়্‌গার্‌।