পাতা:তীর্থরেণু.djvu/১১৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
তীর্থরেণু
 

তুমি যদি দেখিতে,—ও জোনাকী দু’টিরে,—
দুটি প্রাণী রাত্রি মাঝে একটি আলোক;
চারিদিকে বনচ্ছায়া; নিশীথ তিমিরে
সাঁতারিছে তৃপ্তিহ্রদে তৃপ্তিহীন চোখ!
এস! একা রহিব গো কত;
গোলাপ এখনো রাঙা আগুনের মত!

রিকার্ড ডেহ্মেল।

পতিতার প্রতি

চঞ্চল হ’য়ে উঠিনে তুই, ওরে,
কেন সঙ্কোচ? কবি আমি একজন;
সূর্য্য যদি না বর্জ্জন করে তোরে,—
আমিও তোমায় করিব না বর্জ্জন।

নদী যতদিন উছলিবে তোরে হেরে,—
বন-পল্লব উঠিবে মর্ম্মরিয়া,—
ততদিন মোর বাণীও ধ্বনিবে যে রে
তোর লাগি,মোর উছলি’ উঠিবে হিয়া।

দেখা হ’বে ফের, কথা দিয়ে গেনু নারী,
যতন করিস্ যোগ্য আমার হ’তে,
ধৈর্য্য ধরিস্‌,—শক্ত সে নয় ভারি,
আসিব আবার ফিরে আমি এই পথে।

৯৮