পাতা:তীর্থরেণু.djvu/১৪৭

এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।
তীর্থরেণু
 

যোদ্ধৃ জননী

এস বাছা, এস বাপা! দুলাল রে আমার
বিদায় দিয়ে তোরে,
ভাবছি এখন শূন্য ঘরে শূন্য হৃদয় নিয়ে
থাকব কেমন ক'রে।
ডাক এল আর চলে গেলি দুরন্ত যুদ্ধেতে,
বাপের মৃত্যু ভুলে,
অভাগী এই বিধবাকেই আবার দিতে হ’ল
বুকের পাঁজর খুলে,—
দিতে হ’ল প্রাণের চেয়ে যে জিনিষটি প্রিয়,—
পরের হাতে তুলে।

বাছা আমার ভাবে কেবল গৌরবেরই কথা,
জয়ের স্বপন দেখে;
আমার হিয়া অমঙ্গলের মিথ্যা ভয়ে কেঁপে
উঠছে থেকে থেকে।
হয়তো বাছা হ’বি জয়ী, জয়ের মালা সবাই
দেবে তোমার গলে,
আমি সে আর দেখবনাকো, দুঃখে ও আহলাদে
ভেসে নয়ন জলে;
আমি তাহার আগেই যাব,—আগেই মিশে যাব
বসুমাতার কোলে।

১২৬