পাতা:তীর্থরেণু.djvu/১৭৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
তীর্থরেণু
 

শেষে ঢেকে দ্যান অগাধ আফিমে, সংজ্ঞা থাকে না আর,
এই তো মোদের সারাজগতের সনাতন সমাচার!

হে প্রিয় মরণ! প্রাচীন নাবিক! নৌকা আনহে তীরে;
দুৰ্ব্বহ মোর হয়েছে জীবন, লও তুলে লও ধীরে।
অজানা অতলে ঝাঁপ দিব আমি, প্রাণ যে নূতন চায়,
স্বর্গ সে হোল্ক অথবা নরক, তাহে কিবা আসে যায়?

বদলেয়ার।

প্রহরায়

প্রহরায় দোহে জেগে বসে আছি,—
আমি আর সংশয়,
ঝড়ের রাত্রে হয়ে কাছাকাছি—
আমি আর সংশয়।
মগ্ন গিরির শঙ্কা করিয়া
তাকাই অন্ধকারে,
ঢেউ চলে যায় তরী লম্বিয়া
ভরে বুক হাহাকারে।

নৌকায় দোহে পায়চারি করি
আমি আর প্রত্যয়,
ঘন ঘটামাঝে মোরা দেহে হেরি
অকূলে অরুণোদয়।

১৫৫