প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:পণ্ডিতমশাই-শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/১৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দ্বিতীয় পরুিচ্ছেদ e - ১৩ তারপর, হঠাৎ এক দিন সে কুঞ্জ বোষ্টমের বাড়ির স্বমুখেই কুসুমকে । দেখিল । কুষম নদী হইতে স্নান করিয়া কলস-কক্ষে ঘরে ফিরিতেছিল ; সে তখন সবে মাত্র যৌবনে পা দিয়াছে। বৃন্দাবন মুগ্ধনেত্রে চাহিয়া রছিল ; কুসুম গৃহে প্রবেশ করিলে সে ধীরে ধীরে চলিয়া গেল। এ গ্রামের সব বাড়িই সে চিনিত ; সুতরাং এই কিশোরী মে কে, তাহাও সে চিনিল । • এক সস্তান হইলে মাতাপুত্রে যে সম্বন্ধ হয়, বৃন্দাবন ও জননীর মধ্যে সেই সম্বন্ধ ছিল। সে ঘরে ফিরিয়া মায়ের কাছে কুসুমের কথা অবাধে so k প্রকাশ করিল। মা বলিলেন, সে কি হয় বাবা ? তাদের যে দোয়ু " আছে ।

বৃন্দাবন জবাব দিল, তা হোক মা, তবু সে তোমীর বে। যখন , বিয়ে দিয়েছিলে, তখন সে কথা ভাব নি কেন ? : মা বলিলেন, সে সব কথা তোমার বাবা জানতেন। তিনি যা ভাল বুঝেছিলেন—ক’রে গেছেন। বৃন্দাবন অভিমানভরে কহিল, তবে उई ভাল মা ! আমি যেমন আছি, তেমনই থাকি ; আমার বিয়ের জন্ত আর তুমি পীড়াপীড়ি কর . না । বলিয়া সে অনুত্ৰ চলিয়া গেল । t তখন হইতে তিন বৎসর অতিবাহিত হইয়াছে। ইহার মধ্যে বৃন্দাবনের জননী, কুসুমকে ঘরে আনিবার জন্ত, অবিশ্রান্ত চেষ্টা করিয়াছেন ; কিন্তু ফল হয় নাই-কুঁহ্মাক কোন মতেই সন্মত ক্লরান যায় নাই। কুসুমের এত দৃঢ় আপত্তির দুটো বড় কারণ ছিল। প্রথম কারণ—সে তাঙ্গর নিরীহ, অসমর্থ ও of ভাইটিকে এক ফেলিয়া আর কোথাও গিয়াই স্বস্তি পাইতে পারে না"। দ্বিতীয় কারণ—পূৰ্ব্বেই বলিয়াছি। আর কোনরূপ সামাজিক ক্রিয়া

  • -