পাতা:পাল ও বর্জিনিয়া.pdf/১৩৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পাল ও বর্জিনিয়া । ১২৫ নাদিগকে নিজ নিজ কুলায়ে নিভৃত ৰোধ করিয়া একান্তশাস্ত ও সানন্দভাবে কাল যাপন করিতেছিল । উৰ্ম্মিমালী-সুশোভিত সাগরে তারাগণ সহিত তারাপতির প্রতিবিম্ব পতিত হইয়া যে প্রকার মহতী শোভা বিস্তুত করিতেছিল, তাহ দর্শন করিয়া, কাহার চিত্ত চরিতার্থ না হয় ? । সেই সময়ে বর্জিনিয়া সেই মহাৰিস্তারশালী সাগরোপরি দৃষ্টিপাত করত কয়েকখানি ডিঙ্গী দেখিতে পাইল, ও তন্মধ্যস্থ আলোক দর্শনে নিতাস্ত চিন্তু করিতে লাগিল । আপাততঃ তদর্শনে তাহার বোধ হইল যে, যে অর্ণবপোতে তাহার ফান্সদেশ যাত্রা হইবেক তাহ মুসজ্জিত হইয়া অনুকুল বায়ুর প্রত্যাশায় কাল প্রতীক্ষা করত বন্দর-সন্নিধানেই লঙ্গর করিয়া রহিয়াছে । ইহাতে সে মনে২ যৎপরোনাস্তি ব্যাকুল হইয়। তৎক্ষণাৎ তদর্শন হইতে নিজ নেত্র নিবৃত্ত করিল । নিকটস্থ পাল পাছে তাহার তাদৃশ উৎকণ্ঠ অবগত হয় এই ভয়ে, সে তাহ হইতে মুখ ফিরাইয়া লইল । किच्चकृद्ध अख्८त्व कनजीब्लक्रख्द्रण दिदि त्रिणाङ्कल्ल, মার গ্রেট এবং আমি, এই ভিন জনে একত্রে বসিয়াছিলাম। রাত্রি নিঃশব্দ হইয়াছে, এমত সময়ে তাহাদের তৎকালীন পরস্পর কথোপকথন বিলক্ষণ স্পষ্টাভিধানে আমাদের কর্ণকুহরে প্রৰিষ্ট হইল । श्रांश ! डांश८मद्र ८न नकल. कथा श्रांभां८भद्र झभदछ অদ্যাপি জাগরূৰু রহিয়াছে । জীবনসত্ত্বে তাহা কদাচ বিস্তুত হইবার নহে । to. আমরা তখন শুনিতে পাইলাম, পাল বজিনিয়াকে