পাতা:পাল ও বর্জিনিয়া.pdf/২০৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পাল ও বর্জিনিয়া । ン > ? বহিতেছিল। সামুদ্রিক জলচর পক্ষিসকল সমুদ্র ছাড়িয়া স্থলে আসিয়া চিচিকুচিধ্বনি করত আৰ্ত্তনাদ করিতে লাগিল । আমরা বিলক্ষণ অবগত অাছি এসকল কেবল ঝড়েরই পূৰ্ব্বলক্ষণ” । এই কথা শ্রবণ করিয়। গবর্ণর উত্তর করিলেন “ হ ! যথার্থ বটে, ঐ ভয়েই ত আমরা এসকল দ্রব্য সামগ্ৰী আয়োজন করিয়া প্রস্তুত হইয়। রহিয়াছি । বোধ হইতেছে জাহাজের লোকেরাও এখন নিশ্চিন্ত নাই" । এইরূপে আমাদের চারিদিকের লোকেরা সেই সকল লক্ষণ দেখিয়া প্রচণ্ড ঝটিকার আশঙ্কা করিতে লাগিল । তৎকালে আমাদের ঠিক মস্তকের উপরি এক খান নিবিড় মেঘ উঠিয়াছিল, তাহ সাতিশয় ঘোর এবং তাহার প্রান্ত ভাগ তাম্রবর্ণ। আর নভোমণ্ডল ঘোরতর মেঘাচ্ছন্ন হইয়াছিল বলিয়া সারস, বক, চক্রবাক প্রভূতি জলচর বিহঙ্গ সকল তীত হইয়া আৰ্ত্তনাদে দিজুগুলী প্রতিনাদিত করত জল কইতে গাত্রোথান করিয়া স্থানে ২ অtশ্রয় লইতে লাগিল । বেলা ঠিক নয়টার সময়ে আমরা সমুদ্রহইতে ভয়ঙ্কর শব্দ শুনিতে পাইলাম। শুনিয়া বোধ হইল বেগবতী তরঙ্গমালা অতিভীষণ শব্দে দ্রুতবেগে নিম্নভূমি দিয়া চলিয়া আসিতেছে । ইহাতে আমরা नक८ञ ७ककां८ल “बै रुड़ श्राहेल, ये दड़ श्रांझेज” বলিয়৷ চীৎকার করিয়া উঠিলাম। তেমন যে নিবিড় কুজরাটিকাতে অম্বর উপদ্বীপ ও তৎসমীপবর্তী মুতিকে আচ্ছন্ন করিয়া রাখিয়াছিল, তাহা একবারেই ঘুরুলিয়া বাতাসে ছিন্নভিন্ন হইয়া কোথায় গেল তাহার চিকুও