পাতা:পাল ও বর্জিনিয়া.pdf/৫৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পাল ও বর্জিনিয়া । 8° দিয়া কহিল “ বাছা ! কপাল মন্দ হইলেই এ সকল ঘটনা হয়, করিৰে কি ? এত ব্যাকুল হইও না, বীর হও, তোমাকে কিছু খণ্ড সামগ্ৰী আনিয়া দিতেছি, अ८3 थां७, *i८द्र बांश विश्डि एग्न रूङ्गां दाहे८दक ” । এই ৰলিয়া বর্জিনিয়া ঘরের ভিতর থেকে এক পাত্রপুর্ণ খাবার সামগ্ৰী আনিয় তাহার সম্মুখে উপস্থিত করিল । দাসী মাগীও অনেক দিনের পর উৎকৃষ্ট দ্রব্য সকল আহার করিয়া সাতিশয় পরিতোষ প্রাপ্ত হইল । সে আহারাদি করিয়া নিশ্চিস্ত হইয়া বসিয়াছে, এমত সময়ে ৰজিনিয়া, সেই মাগীকে কহিল * হাগো বাছা ! আমি তোমার সঙ্গে গিয়া তোমার উপরি তোমার প্রভূর ক্ষমা প্রার্থনা করিয়া আইলে কি তোমার পক্ষে কোন উপকার দর্শিতে পারে ? তোমার এ ছুঃখ দেখিলে যদি তাহার দুঃখ বোধ না হয়, তবে ৰোধ হইবেক তাহা হইতে কঠোরহাদয় এ ভূমণ্ডলে আর কেহই নাই। এখন বিবেচনা কর দেখি, যদি অtমি গেলে তোমার কোন বিশেষ ফল দশে তবে অামাকে সঙ্গে করিয়া তথায় লইয়া চল ’ । এই कथं स्ऽनिग्न भांशौ अभनि चत्रांश्लां८न कश्प्रिां ॐक्लेिज “আছা মা ! যদি তুমি এইটি করিতে পার, তাহ হইলে তোমার কি না করা হয় । আমার উপরি আমার প্রভূর কোপ শাস্ত করিয়া দিতে পারিলে আমি এ যাত্র পরিত্রাণ লই । ইহার জন্য আমাকে যাহা করিতে অনুমতি করিযে, আমি তাহাতেই সম্মত ও প্রস্তুত আছি। তুমি আমাকে যে সাজাতিক ক্ষুধ জুফার সময়ে অঙ্গ জল দিয়া প্রাণ রক্ষা করিলে, আমি