পাতা:পৃথিবীর ইতিহাস - প্রথম খণ্ড (দুর্গাদাস লাহিড়ী).pdf/১৮৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


১৭৬ ৷ ভারতবর্ষ | BBB DDDDD B BBBBBBBS BB BBDDD BBB BB BBBB BBBBS S BBBBBB BB BBBBBBBBS BB BBBBBBB BBB B BB BBBS প্রথমে প্ৰহলাদ, তাহাকে বিশ্বের স্বটি-কর্তা বলিয়া নমস্কার করিলেন ; তাহাকে পালনকৰ্ত্ত বলিয়া নমস্কার করিলেন ; তাহাকে সংহার-কত্ত্বা বলিয়া নমস্কার করিলেন । কিন্তু তার পর, ক্রমে ক্রমে উাহাকে আত্ম রূপে দর্শন করিলেন। বলিলেন,-“তিনিই আমি, অামা হইতেই সমস্ত উৎপন্ন ; আমিই সৰ্ব্বরূপে বৰ্ত্তমান ; সনাতন-রূপ আমাতেই সমস্ত লয় প্রাপ্ত হইবে।” বেদান্তের সেই “অহংজ্ঞান”—উপনিষদের সেই সোংহুং চিন্তা—প্ৰহলাদের প্রাণে, প্ৰহলাদের স্তোত্রে, কি সুন্দর পরিস্ফুট ! বিষ্ণুপুরাণ গৃহধৰ্ম্মের উপদেশ প্রদান করিতে করিতে, এই অহং-তত্ত্ব’ ব্যক্ত করিয়া গিয়াছেন। চতুর্থ–শিবপুরাণ। শিবপুরাণ প্রকাণ্ড গ্রন্থ । এই মহাপুরাণের এক স্থলে আছে,— ইহা লক্ষ শ্লোকযুক্ত এবং দ্বাদশ সংহিতায় বিভক্ত ” এই পুরাণে আরও দেখিতে পাওয়া যায়,—মহর্ষি কৃষ্ণদ্বৈপায়ন প্রথমতঃ শতকোট শ্লোকে পুরাণ-সমূহ শিব-পুরাণ। রচনা করিয়াছিলেন । কিন্তু শেষে মমুজগণকে অল্পায়ু ও অল্পবুদ্ধি - হইতে দেখিয়; তদন্তর্গত চারি লক্ষ মাত্র শ্লোক ইহ-সংসারে প্রচার করেন । তদনুসারে লক্ষ শ্লোকায়ক শিবপুরাণের চতুৰ্ব্বিংশতি সহস্র মাত্র শ্লোক জনসমাজে প্রচারিত হয়। শিব পুরাণ-জুই থানি । তন্মধ্যে ব্রহ্মবৈবৰ্ত্তের নির্দেশানুসারে “চতুৰ্ব্বিংশতি সহস্রং শৈবমত্র নিরূপিতং" চতুৰ্ব্বিংশতি সহস্ৰ শ্লোকে নিবদ্ধ শিবপুরাণই মহাপুরাণ বলিয়া পরিচিত । শিবপুরাণ অধুনা ছয় সংহিতায় বিভক্ত ; জ্ঞান-সংহিত, বিদ্ধেশ্বর-সংহিতা, কৈলাশ-সংহিতা, সনৎকুমার-সংহিতা, বায়বীয়-সংহিতা (পূৰ্ব্ব ভাগ ও উত্তর ভাগ ) এবং ধৰ্ম্ম-সংহিতা। প্রধানতঃ, শিবতত্ত্ব ও শিব-মাহাত্ম্য পরিবর্ণনই এই পুরাণের উদ্বেগু । কিন্তু তদুপলক্ষে পুরাণের আলোচ্য অন্যান্য সকল কথাই ইহতে পরিবর্ণিত । নৈমিষারণ্য-বাসী মুনিগণের প্রশ্নের উত্তরে ব্যাস-শিষ্য স্থত এই পুরাণের বিষয় ব্যক্ত করেন । ব্ৰহ্মাণ্ডের উৎপত্তি ও ঋষি-আদির স্বষ্টি হইতে আরম্ভ করিয়৷ পাৰ্ব্বতীর তপস্ত, শিবের বিবাহ, কাৰ্ত্তিকেয়ের জন্ম, গণেশের চরিত্র ও শিব কর্তৃক গণেশের শিরচ্ছেদন প্রসঙ্গ, কাশী-মাহাত্ম্য, শিবপূজাবিধি, শিবরাত্রি-ব্ৰত-মাহাত্ম্য, লিঙ্গপুঞ্জ। শিবনাম-কীৰ্ত্তন-ফল প্রভৃতি বিবিধ-তত্বের আলোচনায় শিব-মাহাত্ম্য কীৰ্ত্তনেই এই পুরাণ - નહિ જૂન । এই পুরাণের শেষ অংশে বিবিধ পাপ-ফল-কথন, ধৰ্ম্ম-প্রসঙ্গ, অন্নদান-জলদান পুরাণপাঠ প্রভৃতির মাহাত্ম্য এবং প্রজাপতি-কুত স্বষ্টি-প্রক্রিয়া বর্ণিত হইয়াছে । তাহাতে পৃথু চরিত, অঙ্গ-বংশের বিবরণ, স্বৰ্য্য-বংশের বিবরণ, সত্যব্রত ও সগর রাজার উপাখান দেখিতে পাওয়া যায়। এই গ্রন্থের জ্ঞান-সংহিতায় শিবের সহস্ৰ নাম এবং ধৰ্ম্ম-সংহিতার শিৰের অষ্টোত্তর সহস্ৰ নামপরিকীৰ্ত্তিত হইয়াছে। দুই স্থলে ৰিবিধ ভাবে নাম-কীৰ্ত্তনে কোথাও বর্ণে বর্ণে মিল আছে, আবার কোথাও আদে মিল নাই। গণেশের শিরচ্ছেদন এবং গঙ্গাঙ্গ-যোজনার কারণ এই শিবপুরাণের জ্ঞান-সংহিতার ত্রয়োন্ত্রিংশ-চতুংিশ অধ্যান এবং ব্রহ্মৱৈৱৰ্ত্ত কাণান্তর্গত গণেশ-খণ্ডে অষ্টাদশ ও বিংশ অধ্যায়ে রূপান্তরে পৃঃ হয়।