পাতা:পৃথিবীর ইতিহাস - প্রথম খণ্ড (দুর্গাদাস লাহিড়ী).pdf/৩৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


তৃতীয় পরিচ্ছেদ । سمهساسسیستم می به چه ه ب. م. م بم-مس، س. বেদ-চতুষ্টয় । শাস্ত্রই হিন্দুর ইতিবৃত্ত –বেদ আপৌরুষেয়—বেদের অর্থ,—ঞ্চক, যজু সাম, বেদের তিনটী অঙ্গ :- : BBBB BBBB BBB BBBBK SDDDSBBB BBB BBB B BBB BBB BBB SBBB BBBSBBBB BD DBBB BB BB SBBS BBBBS BBBBS BBBBB SBBB BBBS D DBDt S BBBS BBSBBBBBBB BBBDSDB BBBS BBB BBB SBBB BBBB SBBB DBBDS অ্যান্য শাস্থের উৎপত্তি ;-বৈদিক ধৰ্ম্মই সকল দেশের সকল ধর্মের ভিত্তি-স্থানীয় । ] আর্য্য-হিন্দুগণের পরিচয়—ষ্ঠাহীদের শাস্ত্রগ্রন্থনিচয় । বেদ, বেদান্ত, উপনিষৎ, দর্শন, পুরাণ প্রভৃতি শাস্ত্রগ্রন্থে তাহারা চিরপরিদৃশ্যমান রহিয়াছেন । তাহদের আচার-ব্যবহার, ধৰ্ম্ম-কৰ্ম্ম, রীতি-নীতি—সকলেরই নিদর্শন শাস্ত্রাদিতে জাজ্বল্যমান । র্তাহার কি প্রণালীতে জীবন-যাত্রা নিৰ্ব্বাহ করিতেন ; কি প্রকারে জ্ঞান-বিজ্ঞানের আলোচনায় তাহদের জীবন অতিবাহিত হইত ; কি প্রকারে পৃথিবীর এক প্রান্ত হইতে অপর প্রান্ত পর্য্যন্ত র্তাহাদের প্রভাব বিস্তৃত হইয়। পড়িয়াছিল ; আর কি প্রকারেই বা তাহার। ইহলৌকিক সকল সুখের অধিকারী হইয়াছিলেন –শাস্ত্রাদিতে তাহার নিগুঢ় তত্ত্ব অবগত হওয়া যায়। তাহদের সমাজ-বন্ধন BBB BBS BBB B BDB BBSBBB BBBSB BBBB SBBBB BBBS BBBS মমুন্যত্ব প্রভূতির সকল পরিচয়ই শাস্ত্রমধ্যে নিহিত রহিয়াছে। শাস্ত্রই উহাদের পুরাবৃত্ত ; শাস্ত্রই তাহাদের ইতিহাস ; শাস্ত্রই তাহাদের চরিত্র-চিত্র । শাস্ত্র-তত্ত্ব বুঝিতে পারিলেই তাহাদিগকে বুঝিতে পারা যায়।. শাস্ত্রে । আদি ভূত-বেদ । ধৰ্ম্ম ও ব্রহ্ম প্রতিপাদক অপৌরুষের বাক্য—ৰেদ ৷ ব্ৰহ্মDBBBB BBBBBB BBS BBS BBS BBB BBBB BBBS BBB BBB DBBBS বেদই শাস্থের চুড়ামণি । শব্দগত ধাত্বর্থেও ‘বেদ’ তাহাই বুঝাইয়। BBBSBBBBS BBB BDSBBS BB BBBB BBBS BBBS BBB DDSDBS ধৰ্ম্ম জান" ; অর্থাৎ, যদ্বারা ধৰ্ম্মাধৰ্ম্ম সকল বিষয়ের অভিজ্ঞতা লাভ হয়, তাহাই ‘বেদ’ । আর যত কিছু শাস্ত্র, সকলই বেদ হইতে উৎপন্ন ; বেদ-কাও, অদ্যান্স শাস্ত্র—তাহার শাখা-প্রশাধ-বিশেষ। ঋক, যজু সাম—বেদের তিনটা অঙ্গ ; সেই জন্যই বেদের অপর নাম—‘ত্রী । অধুনা-প্রচলিত ভাষায় যেমন পদ্ধ, গদ্য, গীত—তিন শ্রেণীর তিন অঙ্গ প্রচলিত আছে ; ঋক, যজু, সাম অর্থেও যথাক্রমে তাহাই উপলব্ধি হয়। যজ্ঞকৰ্ম্মের সুবিধার জন্য বেদকে চারি ভাগে বিভক্ত করা হইয়াছিল। সেই সময় হইতেই ঋগ্বেদ, যজুৰ্ব্বেদ, সামবেদ ও অথৰ্ব্ববেদের স্বষ্টি । বলা বাহুল্য, সেই চারি বেদের প্রক্তি খেদেই আবশুকানুসারে তখন ঋক, যজু সাম ( অর্থাৎ পদ্ধ, গদ্য, গীত ) স্থানলাভ করিয়া শাস্ত্রই পরিচয়-চিহ্ন ।