পাতা:প্রবন্ধ পুস্তক-বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/২২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বাঙ্গালির বাহুবল | రి অপূৰ্ত্তি জন্ত যে ক্লেশ, তাহার এমন প্রবলতা চাহি যে, লিঙ্কষ্টত। এবং আলন্তের যে মুখ, তাহা তদভাবে স্কুখ বলিয়। বোধ না হয়। এরূপ বেগযুক্ত কোন অভিলাষ বাঙ্গালির হৃদয়ে স্থান পাইলে, বাঙ্গালির উদ্যম জন্মিবে। ঐতিহাসিক কালমধ্যে এরূপ কোন বেগযুক্ত অভিলাষ বাঙ্গালির হৃদয়ে কখন স্থান পায় নাই। যখন বাঙ্গালির হৃদয়ে সেই এক অভিলাষ জাগরিত হইতে থাকিবে, যখন বাঙ্গালি মাত্রেরই হৃদয়ে সেই অভিলাষের বেগ এরূপ গুরুতর হইবে, যে সকল বাঙ্গালিই তজ্জন্য আলস্য সুখ তুচ্ছ বোধ করিবে, তখন উদামের সঙ্গে ঐক্য মিলিত হইবে। সাহসের জন্য আর একটু চাই। চাই যে সেই জাতীয় মুখের অভিলাষ, আরও প্রবলতর হইবে। এত প্রবল হইবে যে তজ্জন্য প্রাণ বিসর্জনও শ্রেয়োবোধ হইবে। তখন সাহস `ठ्हेtठ् । _ যদি এই বেগবৎ অভিলাষ, কিছুকাল স্থায়ী হয়, তবে অধ্য e .ষসীর জন্মিবে। অতএব যদি কখন (১) বাঙ্গালির হৃদয়ে কোন জাতীয় মুখের অভিলাষ প্রবল হয় (২) যদি বাঙ্গালি মাত্রেরই হৃদয়েসেই অভি. লাষ প্রবল হয়, (৩) যদি সেই প্রবলতা এরূপ হয় যে তদৰ্থে লোকে প্রাণপণ করিতে প্রস্তুত হয়, (৪) যদি সেই অভিলাষের বল স্থায়ী হয়, তবে বাঙ্গালির অবশ্য বাহুবল হইবে। • বাঙ্গালিয় এরূপ মানসিক অযস্থা যে কখন কথা বলিতে পারা যায় না। যে কোন সময়ে ঘটিতে পারে। 's