প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:প্রহাসিনী-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/৪৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্ৰহাসিনী মনের কোণে রচে মেঘের স্ত,প, নাই কোনো তার রূপ— মিলিয়ে যায় সে এলোমেলো নানান ভাবনাতে, মিলিয়ে যায় সে কুয়োর ধারে সজনেগুচছ-সাথে ৷ এদিকে যে লেখনী মোর একলা বিরহিণী ; দৈবে যদি কবি হতেন তিনি, বিরহ তার পদ্যে বানিয়ে নিচের লেখার ছাদে আমায় দিতেন জানিয়ে— বিনয়সহ এই নিবেদন অঙ্গুলিচম্পাস্থ, নালিশ জানাই কবির কাছে, জবাবট চাই আশু । যে লেখনী তোমার হাতের সম্পর্শে জীবন লভে আচলকূটের নির্বাসন সে কেমন ক’রে সবে । বক্ষ আমার শুকিয়ে এল, বন্ধ মসী-পান, কেন আমায় ব্যর্থতার এই কঠিন শাস্তি দান। স্বাধিকারে প্রমত্তা কি ছিলাম কোনোদিন। করেছি কি চঞ্চু আমার ভোতা কিংবা ক্ষীণ । কোনোদিন কি অপঘাতে তাপে কিংবা চাপে অপরাধী হয়েছিলাম মসীপাতন-পাপে ।