প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:প্রহাসিনী-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/৬২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মাল্যতত্ত্ব লাইব্রেরিঘর, টেবিল-ল্যাম্পে জ্বাল,— লেগেছি প্রফ-করেকশনে গলায় কুন্দমালা। ডেস্কে আছে দুই পা তোলা, বিজন ঘরে এক, এমন সময় নাতনি দিলেন দেখা ৷ সোনার কাঠির শিহর-লাগা বিশবছরের বেগে আছেন কন্যা দেহে মনে পরিপূর্ণ জেগে । হঠাৎ পাশে আসি কটাক্ষেতে ছিটিয়ে দিল হাসি, বললে বাক পরিহাসের ছলে “কোন সোহাগির বরণমালা পরেছ আজ গলে ।” একটু থেমে দ্বিধার ভানে নামিয়ে দিয়ে চোখ বলে দিলেম, “যেই বা সে-জন হোক বলব না তার নাম— কী জানি, ভাই, কী হয় পরিণাম । মানবধর্ম, ঈর্ষা বড়ো বালাই, একটুতে বুক জ্বালায়।” (to