পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/২৯৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


>象8ど : - বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় । ইহা বুলি ভূমে লোটাইয়া বিপ্র কান্দে। করএ যতন কত ধৈৰ্য্য নাহি বান্ধে ॥ শ্ৰীঠাকুর মহাশয় করুণা-বিগ্রহ। বিপ্রে আলিঙ্গন কৈলা করি অনুগ্রহ ॥ পাইয় পরশ বিপ্র হরষ হিয়ায়। লইয়া চরণ-ধূলি ধূলায় লোটায় ॥ রামচন্দ্র স্থির করিলেন অধ্যাপকে । অধ্যাপক ধন্ত করি মানে আপনাকে । , সবে হৈলা কৃষ্ণচৈতন্তের ভক্তি-পাত্র। , এ সকল কথা ব্যক্ত হইল সৰ্ব্বত্র ॥ o - - - নরহরি চক্ৰবৰ্ত্তীর ভক্তি-রত্নাকর। ! . . বিশেষ বিবরণ “বঙ্গভাষা ও সাহিত্যে”র ৩৭২–৩৭৬ পৃষ্ঠায় দ্রষ্টব্য। বনবিষ্ণুপুরের রাজা বীরহান্ধীরের নিযুক্ত দস্তু্যদল-কর্তৃক গোস্বামীগণের গ্রন্থ-লুণ্ঠন, বীরহাম্বীরের অনুতাপ ও দীক্ষাগ্ৰহণ ৷ ( History of Bengali Language and Literature ogo gം 'ജീ দ্রষ্টব্য। ) শ্ৰীনিবাসাচাৰ্য্য লৈয়া গ্রন্থ-রত্নগণ । চলে গৌড়-পথে করি গৌরাঙ্গ-স্মরণ ॥ সঙ্গে নরোত্তম ঐছে দেহ ভিন্ন মাত্র। শুগমানন্দ আচার্য্যের অতি স্নেহ-পাত্র। নরোত্তম হামানন্দ সহ শ্ৰীনিবাস। নির্বিঘ্নে চলয়ে পথে হইয়া উল্লাস ॥ নীলাচলে যায় লোক সংঘট পাইয়া । সে সবার সঙ্গে চলে বনপথ দিয়া। শ্ৰীনিবাস, গুণমানন্দ ও বিশেষ শ্রীচৈতন্তের যে পথে গমন। :

  • সেই পথে নীলাচলে গেলা সনাতন।

- স্থানে স্থানে প্রভু ভৃত্য স্থিতি জিজ্ঞাসিয়া । দেখয়ে সে সব স্থান অধৈৰ্য হইয়া। বনপথে চলিতে আনন্দ অতিশয়। কোন দিন কোথায়ও না হয় কোন ভয়।