পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৪০৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ਿਆਿ | শুক্রেশ্বর ও বাণেশ্বরের রাজ-মালা। 一でエトーミ○次ー2/みで下s〜ー রচনাকাল ১৪০৭-১৪৩৯ খৃষ্টাব্দ । বিশেষ বিবরণ “বঙ্গভাষা ও সাহিত্যে”র ২৩৯ পৃষ্ঠায় দ্রষ্টব্য। শ্ৰীধৰ্ম্মমাণিক্য দেব ত্রৈপুর-সন্ততি । রাজ-বংশ বিস্তারিছে রাজ-মালা পুথি। পুস্তক শুনিলে ভূপে পূৰ্ব্ব-রাজ-কথা। ততঃপর নৃপচৰ্য্য না হইছে গাথা ॥ অতএব কহি আমি শুন সেনাপতি । পয়ারে লিখায় তুমি রাজ-মালা পুথি । শুন শুন বলি বলে চতুর নারায়ণ। রাজবংশের কথা কিছু কহত অখন ॥ প্রজাকে পালন করে পুত্রের সমান। ভেদ দণ্ড সাম দান নীতিতে প্রধান ॥ সভাসদ আছে যত ব্রাহ্মণকুমার। বাণেশ্বর শুক্রেশ্বর বিদ্যাতে অপার ॥ ইন্দ্রের সভাতে যেন বৃহস্পতি গণি । সভাসদের নাম । সেই মত দ্বিজগণ হয় মহামানী ॥ জুলভেন্দ্র নামে ছিল চন্তাই (১) প্রধান। পূৰ্ব্বকথা জানে সেই অতি সাবধান ॥ রাজার সভাতে হয় শাস্ত্রের কথন। নানা শাস্ত্র আলাপন করে দ্বিজগণ ॥ সিংহাসনে একদিন বসিয়া নৃপতি। বংশ-কথা জিজ্ঞাসিল সভাসদ-প্রতি। শুক্রেশ্বর বাণেশ্বর দুই দ্বিজবর। চন্তাই সহিত করি দিলেন উত্তর ॥ (১) চন্তাই=ত্রিপুররাজের একশ্রেণী সামন্ত ‘চন্তাই জাতীয়।