প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:বড়দিদি-শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/৬২

এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।
৫৭
বড়দিদি
 


 মথুরবাবু হাসিলেন, “সে তোমার সমস্ত দখল ক’র্‌তে চায়, না, তুমি তার সর্ব্বস্ব দখল ক’র্‌তে চাও, –কোন্‌টা?”

 ব্রাহ্মণ তখন হাতে পৈতা জড়াইয়া ম্যানেজারের হাত চাপিয়া ধরিলেন, “আমি যে এই দশ বছর থেকে সরকারে খাজনা জুগিয়ে আস্‌চি?”

 “জমি ভোগ ক’র্‌চ, খাজনা দেবে না?”

 “দোহাই আপনার–”

 ভাবটা মথুরবাবু বেশ বুঝিলেন। “বিধবাকে ফাঁকি দিতে চাও ত?”

 ব্রাহ্মণ নিঃশব্দে চাহিয়া রহিল।

 “কয় বিঘা জমি?” “পঁচিশ বিঘা।”

 মথুরবাবু হিসাব করিয়া বলিলেন, “অন্ততঃ তিন হাজার টাকা। জমিদার কাছারিতে কত সেলামি দেবে?”

 “যা হুকুম হবে, তাই,– তিনশ’ টাকা।”

 “তিন শ’ টাকা দিয়ে তিন হাজার টাকা নেবে? আমার দ্বারা কিছু হবে না।”

 ব্রাহ্মণ শুষ্কচক্ষে জল বাহির করিয়া বলিল, “কত টাকা হুকুম হয়?”

 “এক হাজার দিতে পার্‌বে?”

 তাহার পর গোপনে বহুক্ষণ ধরিয়া দুইজনে পরামর্শ হইল, ফল এই দাঁড়াইল যে, যোগেন্দ্রনাথের বিধবার প্রতি বাকী খাজনা-বাবদ দশ বৎসরের সুদে-আসলে দেড়সহস্র টাকার নালিশ হইল। শমন বাহির হইল। কিন্তু মাধবীর নিকটে তাহা পৌঁছিল না। তাহার পর