পাতা:বত্রিশ সিংহাসন - নীলমণি বসাক.pdf/১৬৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

১৬০

বত্রিশ সিংহাসন

করুণাবতী এয়ােবিংশ পুত্তলিকা

ক্রোধাভাসে বলিল, হে ভােজরাজ, তুমি নিত্য নিত্য সিংহাসনারােহণার্থ আসিয়া ফিরিয়া যাও, ইহাতে তােমার মনে কিছুমাত্র লজ্জা হয় না, অন্য কেহ হইলে লজ্জায় মুখাবলােকন করাইত না। বীর বিক্রম- দিত্য যে সিংহাসনে উপবেশন করিতেন তুমি কি বিবে- চনায় সেই সিংহাসনে বসিতে বাসনা কর। কাক কখন হংসের তুল্য হইতে পারে না। সিংহের যেমন সম্মান শৃগালের তজপ নহে। মূখের কখন পণ্ডিতের তুল্য সন্মান হইতে পারেনা। তুমি নির্বোধ, তােমার কিছু মাত্র জ্ঞান নাই। শফরী যেমন অল্প জলে লম্ফ ঝম্প করে, তুমি সেই প্রকার অল্প প্রভুত্ব পাপ্ত হইয়া অহ- স্কারে অন্ধ হইয়াছ। অতএব তুমি এই সিংহাসনী- রােহণ করিওনা, করিলে ভস্মরাশি হইবে।

 পুত্তলিকা সহসা এই সকল কটুকথাকথনানন্তর, বােদন করিতে লাগিল। তাহা দেখিয়া রাজা জিজ্ঞাসা করিলেন হে সুন্দরি তুমি কেন রােদন করিতেছ, তােমার অন্তঃকরণে কি দুঃখােদয় হইয়াছে। তুমি রাজা বিক্রমাদিত্যের গুণ ও পুরুষত্বের কোন প্রসঙ্গ বল, আমি শুনিব। করুণাবতী কহিল যদি তুমি নিবিষ্টমনা হইয়া আমার কথা শ্রবণ কর তবে আমি তাহা কহি। রাজা এই কথায় সিংহাসনের নিম্নভাগে