পাতা:বাংলাদেশ কোড ভলিউম ২৮.djvu/২৯০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২৮০ ব্যাংক-কোম্পানী আইন, ১৯৯১ প্রকাশনার পর, উক্ত কোম্পানী বা ব্যক্তি, বা উহার বা তাহার পক্ষে কার্যরত কোন ব্যক্তি, বা অনুরূপভাবে কার্যরত বলিয়া বিবেচিত কোন ব্যক্তির সহিত কোন লেনদেন করা হইলে, উক্ত লেনদেন অকার্যকর হইবে। নগদ জমা এবং সম্পদ ৫৪। (১) ধারা ৫৩ তে বিধৃত যাহাই থাকুক না কেন, কোন ব্যাংক সংরক্ষণ ইত্যাদি কোম্পানী বা অন্য কোন ব্যক্তি সম্পর্কে ধারা ৫২ (১) এর অধীন কোন ঘোষণা ് প্রকাশিত হইলে, উক্ত কোম্পানী বা ব্যক্তির বা উহার বা তাহার পক্ষে কোন ? ব্যক্তির দখলে, তত্ত্বাবধানে, নিয়ন্ত্রণে বা জিন্মায় আছে এমন সব টাকা পয়সা,স্থাবর সম্পত্তি, শেয়ার, সম্পত্তির স্বত্ব-দলিল বা অন্য কোন দলিল, যত শীঘ্র সম্ভব, কোন নূতন ব্যাংক বা তৎকর্তৃক ক্ষমতা প্রদত্ত কোন ব্যক্তির নিকট জমা রাখিতে হইবে। šo (২) উপ-ধারা (১) অনুযায়ী উহাতে উল্লিখিত কোন ব্যক্তি যদি কোন টাকা পয়সা, স্থাবর সম্পত্তি, শেয়ার, সম্পত্তির স্বত্ব-দলিল বা অন্য কোন দলিল ধারা ৫২(১) এর অধীন প্রদত্ত ঘোষণা প্রকাশিত হওয়ার দুই দিনের মধ্যে জমা রাখিতে ব্যর্থ হয়, তাহা হইলে বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক এতদুদ্দেশ্যে ক্ষমতাপ্রাপ্ত কোন ব্যক্তি যে কোন অঙ্গণে প্রবেশ করিতে, উহা তল্লাশী করিতে এবং উক্ত টাকা পয়সা, সম্পত্তি, শেয়ার, স্বত্ব দলিল বা অন্য দলিল আটক করিয়া উপধারা (১) অনুযায়ী জমা রাখিতে পারিবেন। (৩) ধারা ৫৬ এর অধীন আবেদনের ভিজিত আদালত কর্তৃক নিযুক্ত সরকারী অবসায়ক, সরকারী আমমোক্তার, অস্থায়ী-রিসিভার বা সরকারী রিসিভার কর্তৃক ধারা ৫২(১) এর অধীন ঘোষণায় উল্লিখিত কোন কোম্পানী বা ব্যক্তির সকল বহি, হিসাবের খাতাপত্র, দলিল, নথিপত্র এবং সম্পদের দখল বা তত্ত্বাবধানের দায়িত্ব গ্রহণের পূর্ব পর্যন্ত উক্ত কোম্পানীর প্রধান নির্বাহী বা পরিচালক বা উক্ত কোম্পানী বা ব্যক্তির ম্যানেজার, কর্মকর্তা এবং প্রতিনিধি, বা অন্য কোন ব্যক্তি যাহার দখলে বা তত্ত্বাবধানে, নিয়ন্ত্রণে বা জিম্মায় উক্ত বহি, হিসাবের খাতাপত্র, দলিল, নথিপত্র বা সম্পদ থাকে উহা রক্ষণ করিবেন, এবং উক্তরূপ রক্ষিত অবস্থায় উহার কোন লোকসান বা ক্ষতি হইলে তজ্জন্য তিনি -৩ দায়ী থাকিবেন। N SS (৪) ধারা ৫২ (১) এর অধীন ঘোষণায় উল্লিখিত কোন কোম্পানী বা ব্যক্তির নিকট ঋণী রহিয়াছে এমন যে কোন ব্যক্তি উক্ত ঘোষণা প্রকাশিত হইবার তারিখ হইতে উক্ত কোম্পানীর অবসায়নের আদেশ বা আদালতের রায় প্রদানের তারিখ পর্যন্ত সময়ের মধ্যে উপ-ধারা (১) এ বিধৃত পদ্ধতিতে ঋণ পরিশোধ করবেন এবং তৎসম্পর্কে বাংলাদেশ ব্যাংক-কে লিখিতভাবে অবহিত করবেন। (৫) ধারা ৫২(১) এর অধীন ঘোষণায় উল্লিখিত কোন কোম্পানী বা ব্যক্তির বিরুদ্ধে কোন মামলা, আপীল বা দরখাস্ত অথবা অনুরূপ মামলা, আপীল বা দরখাস্ত হইতে উদ্ভূত কোন কার্যধারা এই আইন প্রবর্তনের পূর্বে বিচারাধীন