প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:বাংলাদেশ কোড ভলিউম ২৮.djvu/৩৩০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৩২০ ব্যাংক-কোম্পানী আইন, ১৯৯১ করিলে বাংলাদেশ ব্যাংক তাহাকে উপরিউক্ত উপ-ধারাসমূহে এবং ধারা ২৮ এর উপ-ধারা (২) ও ধারা ৫৭ এর উপ-ধারা (২) এ উল্লেখিত যে কোন অংকের অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করিতে পারিবে।] (১০) উপ-ধারা (৯) এর অধীন অর্থদণ্ড আরোপ করার ১৪ দিনের মধ্যে NONসংশ্লিষ্ট ব্যক্তি উহা পরিশোধ করিলে তাহার বিরুদ্ধে উক্ত উপ-ধারায় উল্লিখিত তে উপ-ধারাগুলির অধীন তৎকর্তৃক কৃত অপরাধের জন্য আর ਾਂ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হইবে না; কিন্তু যদি তিনি উক্তরূপ সময়সীমার মধ্যে দণ্ডিত অর্থ পরিশোধে ব্যর্থ হন তাহা হইলে বাংলাদেশ ব্যাংক সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির কৃত অপরাধের জন্য তাহারবিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করবে।-- ব্যাংক-কোম্পানীর ১১০। ব্যাংক-কোম্পানীর চেয়ারম্যান, পরিচালক, নিরীক্ষক, অবসায়ক, স্ট্রী":" ম্যানেজার এবং অন্যান্য কর্মকর্তা ও কর্মচারী Penal Code, 1860 (Act XLV of 1860) és Section 21 A CRT অর্থে GFC7FFF (Public Servant) কথাটি ব্যবহৃত হইয়াছে সেই অর্থে জনসেবক (Public Servant) বলিয়া গণ্য হইবেন। N Q অপরাধ বিচারার্থ গ্রহণ ΣΣΣ Ι &fΕΪΤΣ οδ এর অধীনসাধারণভাবে সকল অপরাধ বা তদধীন কোন নির্দিষ্ট অপরাধের ব্যাপারে বাংলাদেশ ব্যাংক হইতে এতদুদ্দেশ্যে ক্ষমতা প্রাপ্ত উহার কোন কর্মকর্তার লিখিত অভিযোগ ছাড়া কোন আদালত এই আইনের অধীন কোন অপরাধুজিয়ার্থগ্রহণ করবেন না। o বাংলাদেশ ব্যাংক ১১২। বাংলাদেশ ব্যাংক যদি এই আইনের] অধীন কোন ধারা লংঘন করার ಶ್ಗ জন্য কোন ব্যাংক-কোম্পানীর বিরুদ্ধে আদালতের বিচারার্থ অপরাধ ব্যতীত অন্য নির্ধারিত পদ্ধতিতে একটি তদন্ত অনুষ্ঠান করিতে হইবে এবং উহাতে সংশ্লিষ্ট ব্যাংক-কোম্পানীকে শুনানীর যুক্তিসংগত সুযোগ দিতে হইবে এবং এই প্রকার আদায়কৃত অর্থ - ১১৩। এই আইনের অধীন অর্থদণ্ড আরোপকারী কোন আদালত এই মর্মে ব্যবহারত নির্দেশ দিতে পারে যে, উক্ত অর্থদণ্ড সম্পূর্ণ বা উহার কোন নির্দিষ্ট অংশ সংশ্লিষ্ট - § কার্যধারার খরচ বাবদ বা, ক্ষেত্রমত, যে ব্যক্তির সংবাদের উপর ভিত্তি করিয়া করা যাইবে । CŞ

  • “আইনের” শব্দটি “অধ্যাদেশের” শব্দটির পরিবর্তে ব্যাংক কোম্পানী (সংশোধন) আইন, ২০০৩ (২০০৩ সনের ১১

নং আইন) এর ৪৬ ধারাবলে প্রতিস্থাপিত।