পাতা:বাইবেল পুরাতন নিয়ম ও নতুন নিয়ম.djvu/৭৫৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


যোনা ভাববাদীর পুস্তক । যোনার পলায়ন ॥ Ş সদাপ্রভুর এই বাক্য অমিত্তয়ের পুত্র যোনীর কাছে উপস্থিত হইল, তুমি উঠ, নীনবীতে, সেই মহানগরে যাও, আর নগরের বিরুদ্ধে ঘোষণা কর, কেননা তাহ দের দুষ্টতা আমার সম্মুখে উঠিয়ছে । ও কিন্তু যোনা সদাপ্রভুর সম্মুখ হইতে তশীশে পলাইয়৷ যাইবার নিমিত্ত উঠিলেন ; তিনি যাফোতে নামিয়। গিয়া, তশীশে যাইবে এমন এক জাহাজ পাইলেন ; তথন জাহাজের ভাড়া দিয়া সদাপ্রভুর সন্মুখ হইতে নাবিক দর সহিত তশীশে যাইবার জন্ত সেই ৪ জাহাজে প্রবেশ করিলেন । কিন্তু সদাপ্রভু সমুদ্রে প্রচণ্ড বায়ু পাঠাইয় দিলেন, সমুদ্র ভারী ঝড় উঠিল, এমন কি, জাহাজ ভাঙ্গির যাইবার উপ ক্রম হইল । ও তখন নাবিকের ভীত হইল, প্রত্যেক জন আপন আপন দেবতার কাছে কাদিতে লাগিল, আর ভার লাঘবের নিমিত্ত জাহাজের মাল সমুদ্রে ফেলিয়া দিল । কিন্তু যোনী জাহাজের খেলে নামিয়াছিলেন, শয়ন ৬ করিয়া ঘোর নিদ্রীয় মগ্ন ছিলেন । তখন জাহাজের অধ্যক্ষ তাহার নিকটে আসিয়া কহিলেন, ওহে, তুমি যে ঘুম চছ, তোমার কি হইল ? উঠ, তোমার ঈশ্বরকে ডাক ; হয় ত ঈশ্বর আমাদের বিষয় চিন্তা করি৭ বেন, ও আমরা বিনষ্ট হইব না। পরে নাবিকের পরস্পর কহিল, আইস, আমরা গুলিবাট করি, তাহা হইলে জানিতে পারিব, কাহার দোষে আমাদের প্রতি এই অমঙ্গল ঘটিতেছে। পরে তাহার গুলিবাট করিল, ৮ আর যেlনার নামে গুলি উঠিল । তখন তাহরী তাহাকে কহিল, বল দেখি, কাহার দোষে আমাদের প্রতি এই অমঙ্গল ঘটিতেছে ? তোমর ব্যবসায় কি ? কোথা হইতে আসিয়াছ ? তুমি কোন দেশের লোক ? ৯ কোন জাতীয় ? তিনি তাহাদিগকে কহিলেন, আমি ইব্রীয় ; আমি সদাপ্রভুকে ভয় করি, তিনি স্বর্গের ১• ঈশ্বর, তিনি সমুদ্র ও স্থল নিৰ্ম্মাণ করিয়াছেন । তথন সেই লোকের অতিশয় ভীত হক্টর তাহাকে কহিল, তুমি এ কি কৰ্ম্ম করিয়াছ ? কেনন। তিনি যে সদাপ্রভুর সন্মুখ হইতে পলাইতেছেন, ইহা তাহারা জ্ঞাত ১১ ছিল, কারণ তিনি তাহাদিগকে বলিয়াছিলেন। পরে তাহারা তাহাকে বলিল, আমরা তোমাকে কি করিলে সমুদ্র আমাদের প্রতি ক্ষান্ত হইতে পারে । কেননা ১২ সমুদ্র উত্তর উত্তর প্রচণ্ড হইয়। উঠিতেছিল। তিনি তাহাদিগকে কহিলেন, আমাকে ধরিয়া সমুদ্রে ফেলিয়৷ দেও, তাহীতে সমুদ্র তোমাদের পক্ষে ক্ষান্ত হইবে : কেনন। আমি জানি, আমারই দোষে তোমাদের উপরে ১৩ এই ভারী ঝড় উপস্থিত হইয়াছে তথাপি সেই লোকের জাহাজ ফিরাইয়া ডাঙ্গায় লইয়। যাইবার জষ্ঠ ঢেউ কাটিতে যত্ন করি ; কিন্তু পারিল না,কারণ সমুদ্র তাঁহাদের বিপরীতে উত্তর উত্তর প্রচণ্ড হইয়৷ ১৪ উঠতেছিল। এই জন্ত তাহার। সদাগ্রভুকে ডাকতে লাগিল, আর বলিল, বিনতি করি, হে সদাপ্রভু, বিনতি করি, এই ব্যক্তির প্রাণের নিমিত্ত আমাদের বিনাশ না হউক, এবং আমাদের উপরে নির্দোষের রক্ত অপণ করিও না ; কেননা, হে সদাপ্রভু, তুমি আপন ১৫ ইচছমত কৰ্ম্ম করিয়াছ । পরে তাহার যোনাকে ধরিয়৷ সমুদ্রে ফেলিয়া দিল, তাঙ্গতে সমুদ্র থামিল, ১৬ আর প্রচণ্ড হইল না। তখন সেই লোকের সদ্যপ্ৰভু হইতে অতিশয় ভীত হইল ; আর তাতার সদাপ্রভুর উদেশে বলিদান করিল, এবং নানা মনত করল । ১৭ আর সদাপ্রভু যোনাকে গ্রাস করণার্থ একটা বৃহৎ মৎস্ত নিরূপণ করিয়াছিলেন ; সেই মৎস্তর উদরে যেন তিন দিন ও তিন রাত্রি যাপন করিলেন । २ তখন যেন ঐ মৎস্তের উদরে থা কয় আপন ঈশ্বর সদাপ্রভুর নিকটে প্রাথন করলেন। তিনি কহিলেন, ২ আম সঙ্কট প্রযুক্ত সদাপ্রভুকে ডাকিলাম, আর তিনি আমাকে উত্তর দিলেন ; আমি পাতালের উদর হইতে আৰ্ত্তনাদ করিলাম, তুমি আমার রব শ্রবণ করিলে । ও তুমি আমাকে অগাধ জলে, সমুদ্র-গৰ্ত্তে, নিক্ষেপ কারলে, আর স্রোত আমাকে বেষ্টন করিল, তোমার সকল ঢেউ, তোমার সকল তরঙ্গ, আমার উপর দিয়া গেল । ৪ আমি কহিলাম, আমি তোমার নয়নগোচর হইতে দুরীভুত, তথাপি পুনরায় তোমার পবিত্র মন্দিরের দিকে দৃষ্টি পাত করিব । ৫ জলরাশি আমাকে ঘেরিল, প্রাণ পৰ্য্যন্ত উঠিল, জলধি আমাকে বেষ্টন করিল, মৃণাল আমার মস্তকে জড়াইল । ৬ আমি পৰ্ব্বতগণের মূল পয্যন্ত নামিয়া গেলাম : আমার পশ্চাতে পৃথিবীর অর্গল সকল চিরতরে বদ্ধ হইল : তথাপি, হে আমার ঈশ্বর সদাপ্রভু, তুমি আমার প্রাণকে কুপ হইতে উঠাইলে । ৭ অামার মধ্যে প্রাণ অবসন্ন হইলে আমি সদাপ্রভুকে স্মরণ করিলাম, 746