পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/১৬৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8 锣 মালকোয-আঞ্জাঠেক। নয়ন-জলে বেরিলে সকল, ও মৃগনয়নি। ' মনকরী মোর, পলাবার পথ তার, নাহি হেরি বিনোদিনি ॥ হেতু নিজ প্রয়োজন, যদি করিলে এমন, সহাস্ত-বদনে, তোষ অমিয় বচনে, উচিত হয়লো ধনি ৷ টোড়ী—জলদ ভেতাল । কেমনে রহিব ঘরে মন মানে না । হেরি মোর দুঃখানল, লাজ ভয় পলাইল, কলঙ্ক বারণ করে ন৷ লোকের কথায় আর, কেমনে হইব স্থির, ঘুচিবে অন্তর-যাতনা। বিনা তার দরশন, অশেষ মত যতন, উপায় করিতে পারে না ৷ দরবারী টোড়ী-তে ভাল । নয়নে না দেখে করে, বিনে তারে যারে, প্রাণ সঁপিলাম । প্রবোধ না মানে, করয়ে রোদনে, এতেক বুঝিলাম ॥ মন নয়নের বশ, প্রাণ আছে তার পাণ, ইহাতে সদয়, य िcनद्दे श्ब्ल, উপায় দেখিলাম ॥ বসন্ত বাহার-আঞ্জাঠেকা । বসন্ত ঋতু আইল, হইল মুখ প্রবল, সব প্রফুল্ল ফুল-কানন। মন্দ মন্দ মলয় পবন বহে তায়, পিক করে কুহু কুহু, মধুকর আনন্দিত, সদ| গুঞ্জরে হরিষান্বিত আনন ॥ কি কব সমরঙ্গ, অনঙ্গবিশেষে সাঙ্গ, শরাসনে করেছে সন্ধান । বিরহিণী কাতর এমন হেরি, যেমন শশী দেখি রাহু, অতিশয় উল্লাসিত, যত সংযোগী সহান্ত বদন ॥ க বাঙ্গালীর গান । বাঘেশ্বরী টোষ্ট্ৰী—জলদ তেভাল । বিনাদরে, অনাদরে, কে কার বশ । করিলে আদর হয় হৃদয়-কমল প্রকাশ ॥ রাখিতে একের মন, করে যদি এক মন, হইয়া উল্লাস। দুই মন দুই মন এক কি হয় কোন ভাষ ॥ গৌরী-জলদ ভেতালা । যেমন আমারে ভ{সালে নয়ন-জলেতে । তেমতি নয়ন, বারি বরিষণ, হুইবে প্রাণ, তোমারে ভাসিতে । so কত মুখ আশা করি, তোমার হাতেতে ধরি, প্রাণ দিলাম হাসিতে হাসিতে ॥ মোর বশ মন, নহে ত এখন, কাতর নয়ন, কাদিতে কাদিতে ॥ গৌরী —জলদ তেতাল । আসিতে এখানে কে বারণ করিলে । অবল-বধের ভয় সে নাহি ভাবিলে ॥ ষট্রপদ মধুকর, নিরস্তর অষ্ঠাস্তর, দ্বিপদ কি ঘটুপদ, স্বভাব পাইলে ॥ নিশি না পোহাইতে কি চঞ্চল হইলে । আমার কি নাহি লাজ,লোকেতে দেখিলে ৷ শণীর কিরণ দেখি, চকোর কুমুদ মুখা, অরুণ উদয়-ভাব, ইথে কি ভাবিলে ॥ श्मिण-य्{ौढ़ic#क । মিছে অনুযোগ সই লো করিছ কি কারণে । কি করিতে পারে মন, মত্ত ধারণে বারণে ॥ আমার বশ এখন, নহে সে দুরন্ত মন, বুঝালে যে নাহি বুঝে, তারে পরিবে কেমনে ॥ মিলেছে সুখে থাকুক, ন শুনে সেথা মরুক, দুখবোধ হলে কেহু, কোথা থাকয়ে কখনে ॥ ললিত্ত—জলঙ্গ ভেজাল । পিরীতি পরম মুখ সেই সে জানে। বিরহুে না বহে নীর যাহার নয়নে ॥ থাকিতে বাসন বার, চন্দন বনে। ভুজঙ্গের ভয় পেঁপ~কি কখনে। حب ۳: