পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/২০৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


১১৬ {} চিতেন । অস্থির হোলো এ চারি জনে । প্রবেধি, প্রবোধ নাহি মানে । ইহার বিহিত, যে হয় তুরিত, কর প্রেয়সি এখন ॥ অন্তর । প্রাণ, জীবন ধেীবন ধন। এতো চিরপদ নহে জন ॥ * চিত্তেম । এ তুমি শুনেছ জানতে প্রাণ অনুগতের রখ সম্মান । ও মৃগলোচনি, ও বিধুবদন, কর মুধবিউরণ ॥ অন্তর। প্রাণ, এরূপ আশ্বাস কথায় । বল কি ফল আছে তয়৷ চিত্তেন। প্রতি দিন আসি বিমুখে যাই। নিবৃত্তি না হয় এ আশা-বাই। তুরিতে সাস্তুন, কর মুলোচনা, আর না সহে যাতন ॥ प्रद१ ।। ওহে বার বার আর কেন, জানাও আমায়। বুঝিয়াছি তেমোর যে মনের আশয়। তুমিতে আমার আছ, গিয়েছ কোথায়। চিতেন । সুখে থাক, মন রাখ, এখন এই চাই । তবু গুণ গাই, কোথাও না যাই । তুমি মত ভালবাস ভাবে বুঝা যায়। অন্তরা । ওহে তোমার ও গুণ প্রাণ, থাকুক তোমায়। ও বাতাস যেন হে না লাগে কার গায়। পরচিতেন । তব সম, প্রিয়তম, কোথা পাব আর । হেন অসামান্ত গুণ আছে কার । বিবিধ রূপেতে আমি জেনেছি তোমায় ॥ অন্তর । যদি নারী হোয়ে করে কেউ প্রেম অভিলাষ । তোমার মতন রসিক পেলে, পুরে তার আশ । বাঙ্গালীর গান । পরচিতেন , যেরূপ মুখে সে ভাসে, বিধি বিধানে। কব কেমনে, শুধু, সেই জানে। এক মুখে তব গুণ, কোয়ে না ফুরায় ॥ অন্তরা । ওহে যত দিন দেহে প্রাণ, থাকিবে আমার। ঘুষিব ঘোষণা নিয়ত তোমার ॥ পরচিতেন । তুমি যেমন, সুজন, রসিকের শেষ। জানি সবিশেষ, নাহি দোষলেশ। তোমার রীত চরিত, জাগিছে হিয়ায় ॥ অন্তর) । তুমি ঘুণগ্রেতে জাননাক শঠতা কেমন। আহা মরি মরি তব, কি সরল মন ॥ পরচিতেন । রঘুনাথ বলে কেন ও বিধুমুখি। কি দোষ দেখি, হেয়েছ দুর্থী। কেন হেন বাক্যবাণ, হানিছ উহায় ॥ মহড়া । ধিক্ ধিক্ ধিকৃ তার জীবন যৌবন। এমন প্রেমের সাধ করে যেই জন । সে চাহেন, আমি তার যোগাই মন ॥ চিতেন। যেখানেতে না রহিল, মানিজনার মান। সে কেমন অজ্ঞান, তারে শপে প্রাণ। সেধে কেঁদে হয় গিয়ে কলঙ্কভাজন। অন্তরা । একি প্রণয়েরি রীতি সই, শুনেছ এমন । কেহ সুখে থাকে, কেহ দুখে জ্বালাতন ॥ চিতেন । শয়নে স্বপনে মনে, যে ঘরে ধ্যায়ায়। সে জন তাহায় ফিবে নাহি চায়। তথাপি নাপারে তীরে হোতে বিস্মরণ ॥ অন্তরা । সখি, পিরীতি পরম ধন, জগতের সার। মুজনে কুজনে হলে, হয় ছরে খার ॥ চিতেন। .A. সামান্ত খেদের কথা একি প্রাণ সই।