পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/২৬১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রাম বসু । ృు ఎ কেথি শিখলে প্রাণ, এমন মন রাখা । বুঝতে নারি ভাব, একি ভাব তোমার আজ সখা ত্যজ্য ধনের বাড়ীয়ে সম্মান, কর পূজ্যধনের অপমান | যথায় তব নব ভাপ, তারে প্রাণ বলগে—হলে তার মুখ । আময় কেন বলে প্রাণ, বাড়াও দ্বিগুণ দুঃখ | ভেবেছিলাম রসময় গিয়াছে সে দিন । এখন হ’লম প্রাণ, কেবল কথার প্রাণ, কিন্তু কৰ্ম্মে ফুলহীন । তোমার বিচ্ছেদ হে আমার গলার হার । করব অনাদর কি দোষে বলহে তাহার। চাখের দেখা মুখের আলাপন । এখন সেই লক্ষ লাভ জ্ঞান | ওলো সুধাংশুমুখি প্রাণ, কি নতন মান দেখালে। তোমার হাসি শশী মুখে, কান্নাও আছে চোখে, বচনে মান রেখে প্রাণ জুড়ালে। কোরে মান, প্রেমের দুই পক্ষ সমান, জানালে ; আমার এ পক্ষে না করে বিপক্ষতা । তোমার মানেতে নাই কৌশগ, না দেখি কোন ছল, শতদল ভেসে যায় নয়ন-জলে | মান তরঙ্গে অঙ্গ ভুবলে, প্রাণ তো ভেঙ্গে বল্লেন । আকার ইঙ্গিতে, ভাবের ভঙ্গিতে, বুঝলাম্ যেমন মন্ত্রণা। আমার নিগ্রহ কোবে নাকি নিদ্ধার্য্য। কোরে ঔদান্ত মান, অধৈৰ্য্য কোলে প্রাণ, আপনায় আপনি নও ধৈর্য্য ॥ ওলে পূর্ণচন্দ্রাননে, আধো আধো পানে, আধো চাদ ঢেকেছ প্রাণ অঞ্চলে ॥ তোমার কতবার দেখেছি প্রাণ কত মান। আজ কি স্বষ্টিছাড়া স্থষ্টি । ভেবে দেখলে সে মান, ম'লেও রাগ যায় না প্রাণ, অথচ আমার পনে সুদৃষ্টি । আজ, স্থষ্টিছাড়া সৃষ্টি ॥ তোমার মানের উপরে মান, কোরে আজ মান বাড়ব । আমায় আজ যেমন কদলে, পায়ে ধোরে সাধালে, আমি আজ তেমৃনি কোরে কঁদিব । প্রাণ যে করেছে নিদরুণ মান, সাধতে গেল আমার প্রাণ। কোন দষী নই, তবু সকল সাই, প্রেম সম্বন্ধে মাঙ্গমন । কেমন কোরেছ পিরীতে পদানত । সপিলাম ধন প্রাণ, তবু মন পাইনে প্রাণ, অপমান প্রাণে সব কত । কর কথায় কথায় দ্বন্দু, কেমন কপাল মন্দ, গোবিন্দ জুড়ান তো প্রাণ জুড়াব। তোর বল দেখি সই, পুরুষের মান যায় কেমন করে। আমার মান সমাধান, কোল্লে পায়ে ধোরে যে সই, আমি নারী হেয়ে কোন মুখে তযু সাধবো পায়ে ধরে। ভেবেছিলাম মনে, মেজে মনে, আপনার মান বাড়াই। তাহে একদিকে মান রাখিতে গো সই, দুদিক বা হারাই ॥ যখন মান কোরে মানিনী হোয়ে রই গো মনের দুখে। কতবার তখন, প্রাণনাথ আমার, মানের দায়ে আকুল হেয়ে, প্রাণ দিয়ে মান রাখে এখন আমার মান ভেঙ্গে দিয়ে, উণ্টে মান কল্পে। সষ্ট, এবার তার মানের মান, থাকে কিসে তাই ভাবি অন্তরে ॥