পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/২৬৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


झांभ १६ እ ላ¢ ঘুচে সব জ্বালা, জুড়ায় অবল, ধার লাগি বরে হলেম্ পর, ত্যজলে এ পাপ জীবনে ॥ | সে ভাবিল পর। পোড়া যৌবন গেল, পরে আবার সাধে বাদ, শুনি পরস্পর। জীবন গেলে প্রাণ জুড়ায় গে। সখি। পরম ভাজন, ছিল যে জন, নইলে জালা জুড়াবার আর উপায়ু না দেখি ॥ পরোক্ষে সে হাসিছে | আমার কুল রক্ষে, মান রক্ষে, সমভাব দুপক্ষে পাছে বিপক্ষে বলে আবার অসতী ॥ ন। বুঝে সই পরের প্রেমে মজ লাম একবার, সখি সেই পরে, তারোপরে, পরে, মন ছিল আমার । সে পর বিধির সংঘটন, পরম ভাজন । তং পরে তংপরে ভেবে পরে দিলাম মন । আবার তীরে, অন্ত পরে, পর কোরে রেখেছে ৷ ত্যজে মুখের বৃন্দাবন, বৃন্দে সই, তিলেক আমি নই ৷ কেবল ভক্তের মনোরথ পূরাতে, মথুরায় এলেম রসময়ী। মরি সুধাও কি সখি ! আমার আশ্চর্য্য ! প্রেমে সুখী হব বলে সখী গে], সপিলাম পরে প্রাণ মন । ভাগ্যগুণে সে সাধে বিষাদ ঘটলে| আমার সই এখন। প্রেমের রীতি নীতি পদ্ধতি ব্যাভার, জানতাম না আগে সই, শিখিলাম ঠেকিয়া এই বার। আমি অবল সরল, এত কি জানি বল না। আমার বললে সে—মন দিলেই মন তুষিবে । সপিলাম এই ভেবে তায় আগে মন , কে জানে সে মন না দিবে। দিয়া আপনার ধন সেধে পরে, পরের ধন পেলেম না পরে । স্বপ্নে জানি না সে এই শত্ৰু হাসাবে। আগে তুললে সিংহাসনে কথাতে কে জনে শেষে কাদাবে । ভাবলাম, প্রাণ দিয়ে পাব পরের প্রণ, জুড়াব জনায়—হবে সই মুখের অনুষ্ঠান ৷ মন সরল নাকি নারীর অতিশয়, কপট বোঝে না ; তাতেই মজে গে পুরুষের শঠভাবে ॥ _ _: আমায় পর ভেবে সই পর সকলি হেয়েছে। আমি যে পদ ভজিলাম সখি, পর-সুখে হব মুখী, অপরে কি আছে বাকী, সে পরে পর ভেবেছে | অতঃপর না জানি কি কপালে আছে। রাই হতে শ্রেষ্ঠ নয় জেনো সই মধুর মধুরাজ্য। এলাম অপার্য্যে মধুপুরে, ত্যজে গোপিকারে, কেবল এই কংস ধ্বংস-কারণে । তিলেক গে। বৃন্দাবন ছাড়া নই, আমি বাধা সেই রাধার চরণে ; বজাই বাশীতে রাধার নাম, আমি সেই রাধার শ্যাম, রাধ বই ধ্যানে জ্ঞানে জানি নে ॥ নিরখি মধুপুরে একি আজ অপরূপ ! মধু রাজ্যেশ্বর, হয়ে বসেছেন ব্রজের নট ভূপ। খেদে বিষাদে অঙ্গ দয় ; কোটালের রাজত্ব দেখে চিত্ত ব্যাকুলিত হয়। ব্রজের মনচোরা যে হরি, রাজা সে আ মরি, বিধির বিচারের পায়ে নমস্কার । ছি ! ছি:! এই কি দশা এখন দেখতে হল মথুরার। যে নগর গোপীর বসন চোর, চোরে মহারাজ