পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৪১৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


\రిశ్చి&ు ললিত—fটমেতেত্তাল।। ক বা যায়, কে বা বাজায় বাণে । এ নহে সে বাণে, মধুর বীণে, কে বাজাতে পারে মধুস্থদন বিনে ॥ ছিল না জীবন যা বিনে, পেলাম জীবন শুনে বীণে, যায় জীবন জীবন বিনে, কাজ কি জীবন কুষ্ণ বিনে । অলি যেমন কমল বিনে, চকোর যেমন চন্দ্র বিনে, চাতক যেমন বারি বিনে, আমি তেমনি হরি বিনে ॥ বিভাস-তিওট । রাই কঁ,দ যা বিনে, ಆಡ್ವ তার বাণে, ওযে ও তা নইলে ভাণ, মেরু কঁদিবে কেনে, এ বিনে সে বণে নয়, নারীমুনির শাণে নয়, দেধের দুর্লভ বাণে, এমন বাণে কে বাজাতে পারে—আমার শ্রাম বিনে । তোর জেনে আয়ু সহচর, পুরুষ কি কপট নারী, কি আমার হরি,— দেখ দেখি নবীন কি সে ও প্রবণে । ললিত্ত—এক ভাল । ধনি কাশী যাওয়া কিসের জন্তে । কাশীনাথ আসি, বৈরাগ্য প্রকাশি, শুনে মোহন বঁাশী ভ্ৰমে অরণ্যে ৷ এ বয়সে ধনি কেবা যায় কাশী, যার ক্ষয় কাশি সেই যায় কাশী, বাঙ্গালীর গান। আমি চনা, আমি স্থৰ্য্য, আমি দিবারাতি, আমি তন্ত্র আমি মন্ত্র, আমি সন্ধ্যা গায়ত্রী, যখন জন্মিলাম আমি যে অবতারে, দুষ্টের দমন শিষ্ট্রের পালন করি ত্রিসংসারে এ কথা শুনিয়া রাধার অঁখি ছল ছল, কোথা গেল প্রাণ পূ বল বল বল ; চিস্তিত না হয়ে রাধে কি চিন্তা অন্তরে,— যার পতি চিন্তামণি, সেও কি কখন চিন্তা করে ம-_ _ পিঝিট—টিমে তেভাগা । এসেছি ঠেকিয়ে যে দায়, কারে কব দায়। যার দায় সেই তো জানে, পর কি জানে পরের দায় | মরে দায়ে কতবার কত রূপ ধরি, কখন পুরুষ হই সই কখন হই নারী, হয়ে বিদেশিনী নারী, লাজে মুখ দেখাতে নারি, কথা বলতে নারী কইতে নারী। নারী হওয়া বিষম দ" ॥ যার দায়ে কতবার কত রূপ ধরি, জহরিণী নাপূৰ্তিনী হয়ে 51, রাখবে না আর কাল অঙ্গ, স্বরূপে মিশাব অঙ্গ হবে গৌরাঙ্গ বর্ণ দেখাইব দাও বিদায়। गिकू-ग९ ।। কি ফল বিফল এ বাসে, যেরূপ সে বলে,— আমার গৃহ-বাসে গৃহ-বাসে অনুগ্রহ নাই বাসে, গৃহে যারে ভালবাসে, তরে ভাল ভালবাসে, গৃহে যারে না ভালবাসে, কি করে তার কাণীবাসে । বল গে প্রকাশি যেরূপ রূপরাশি, শু্যামা অভিলাষী, শ্যামাকান্ত আসি হরে শরণ্যে ॥ বৃন্দাবনে যিনি আছেন ব্রজেশ্বরী, সৰ্ব্বেশ্বরী তায় বলান সৰ্ব্বেশ্বরী, তিনি ঈশ্বরের ঈশ্বরী ;— দেখলে সে কিশোরী, সাধ্য কি পাসরি, এক পাসরি কোথা যাবে কি জন্তে ॥ ঝিল্মিট—টিমে তেতাল।। কি করে কৈলাস-বসে, কি করে বৈকুণ্ঠ-বাসে, তুল্য ঘর বনবাসে ॥ কখন ব্রাহ্মণ-বাসে, কখন ক্ষত্ৰিয়-বাসে, কখন বৈগু-বাসে, কখন শুদ্ৰ বাসে, পূৰ্ব্বে যখন ছিলাম বাসে, অপুৰ্ব্ব মুখ ছিল বসে এখন গমন আমার শমন বাসে, নৈরাশ হুইল বাসে, কাজ কি আর বসবাসে৷ ঝিঝিট-আড়াঠেকা। শেন কমলিনী ( আমি ) পরিচয় দি তোমারে। আমি না জানালে আমার কেবা জানতে পারে। এ হাটে বিকায় না অঙ্গ সুত, বিকায় নন্দরাণীর সুত ;