প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:বিচিত্রিতা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/১২৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বর্ণানুক্রমিক সূচী বিষয় আজ তুমি ছোটো বটে, যার সঙ্গে গাঠছড়া বাধা ( প্রকাশিত। ) আমি থাকি এক। ( যুগল ) একাকিনী ব’সে থাকে আপনারে সাজায়ে যতনে ( একাকিনী ) এই যে রাঙা চেলি দিয়ে তোমায় সাজানে। ( সাজ ) এ পারে চলে বর, বধু সে পরপারে ( বরবধু) এসেছিল বহু আগে যারা মোর দ্বারে ( অনাগত ) একা তুমি নিঃসঙ্গ প্রভাতে ( দ্বারে ) ঐ যে তোমার মানস-প্রজাপতি ( মরীচিকা ) করে লাগি এই গয়না গড়াও ( স্ত্যাকুর ) কালে। অশ্ব অস্তরে যে সারারাত্রি ফেলেছে নিশ্বাস (কালোঘোড়া) . কুমার, তোমার প্রতীক্ষা করে নারী ( কুমার ) কেন এ কম্পিত প্রেম, অয়ি ভীরু, এনেছ সংসারে ( ভীরু ) কোন ছায়াখানি ( ছায়াসঙ্গিনী ) জননী, কন্যারে আজ বিদায়ের ক্ষণে ( কন্যা বিদায় ) ঝাকড়াচুলের মেয়ের কথা কাউকে বলিনি । ঝাকড়াচুল ) তোমারে"আমি কখনো চিনিনাকে ( অচেন ) তোমার যে ছায়া তুমি দিলে আরশিরে ( আরশি ) তোমাতে আমাতে আছে তো প্রভেদ ( প্রভেদ ) তোমার আমার মাঝে হাজার বৎসর (বিদায় ) ૨ (t \ՇԵ ૨૨ S ዓ 8br 6 (t 8 ર 8 り సె ২৯ @br > ૨ אס\ 企。