পাতা:বীথিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৩৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বীথিক প্রাণের রহস্য হুগভীর অন্তর-গুহায় ছিল স্থির, . সে আজ বাহির হোলে৷ দেহ ল’য়ে উন্মুক্ত আলোতে অন্ধকার হতে, হুদীর্ঘকালের পথে চলিল সুদূর ভবিষ্যতে। যে আনন্দ আজি মোর শিরায় শিরায় বহে, গুহের কোণের তাহা নহে । আমার হৃদয় আজি পান্থশালা, প্রাঙ্গণে হয়েছে দীপ জ্বালা । হেথা কারে ডেকে আনিলাম অনাদিকালের পান্থ কিছু কাল করিবে বিশ্রাম । এ বিশ্বের যাত্রী যারা চলে অসীমের পানে আকাশে আকাশে নৃত্য-গানে— আমার শিশুর মুখে কল-কোলাহলে সে যাত্রীর গান আমি শুনিব এ বক্ষতলে । অতিশয় নিকটের, দূরের তবু এ, আপন অন্তরে এল, আপনার নহে তো কভু এ | సిరి