পাতা:বীথিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৩৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বীথিক শুকতারা তব কয়েছিল যে কথারে সন্ধ্যার অালো সোনায় গলায় তা’রে সকরুণ পূরবীতে ॥ চিনি, নাহি চিনি তবু । প্রতি দিবসের সংসারমাঝে তুমি স্পর্শ করিয়া আছ যে-মর্ত্যভূমি তা’র আবরণ খ’সে পড়ে যদি কভু তখন তোমার মৃরতি দীপ্তিমতা প্রকাশ করিবে আপন অমরাবতী, সকল কালের বিরহের মহাকাশে । তাহারি বেদন কত কীৰ্ত্তির স্ত,পে উচ্ছিত হয়ে ওঠে অসংখ্য রূপে পুরুষের ইতিহাসে । হে কৈশোরের প্রিয়া, এ জনমে তুমি নব জীবনের দ্বারে কোন পার হতে এনে দিলে মোর পারে অনাদি যুগের চির-মানবার হিয়৷