পাতা:বীথিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৯৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গীতচ্ছবি তুমি যবে গান করে, অলৌকিক গীতমূৰ্ত্তি তব ছাড়ি’ তব অঙ্গসীম। আমার অন্তরে অভিনব ধরে রূপ, যজ্ঞ হতে উঠে আসে যেন নাজ্ঞসেনী,— ললাটে সন্ধ্যার তারা, পিঠে জ্যোতি-বিজড়িত বেণী, চোখে নন্দনের স্বপ্ন, অধরের কথাহীন ভাষা মিলায় গগনে মৌন নীলিমায়, কী হুধা পিপাস আমরার মরীচিকা রচে তব তনুদেহ ঘিরে । অনাদিবীণায় বাজে ঘে-রাগিণী গর্ভারে গম্ভীরে সৃষ্টিতে প্রস্ফুটি উঠে পুষ্পে পুষ্পে, তারায়, তারায়, উলুঙ্গ পর্বতশৃঙ্গে, নিঝরের দুৰ্দ্দম ধারায়, জন্ম মরণের দোলে ছন্দ দেয় হাসি ক্রন্দনের, সে অনাদি সুর নামে তব সুরে, দেহ বন্ধনের 이어