পাতা:বুয়র ইতিহাস - প্রিয়নাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/৩৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

৩৪

বুয়রদিগের উৎপত্তি।

 ডচ্‌দিগের এইরূপ ব্যবহারে ইংরাজগণ তাঁহাদিগের উপর অতিশয় কুপিত হইলেন; এবং তাঁহাদিগের দ্বারা অধিকৃত দক্ষিণ আফ্রিকা আক্রমণ করিবার অভিপ্রায়ে, সেইদিকে সৈন্য প্রেরণ করিলেন। অরেঞ্জ সম্প্রদায়ের নেতা (যিনি ইংলণ্ডে পলাইয়া আসিয়াছিলেন) ইংরাজদিগকে সম্পূর্ণরূপে সাহায্য করিবার নিমিত্ত দক্ষিণ আফ্রিকার শাসনকর্ত্তাকে একখানি পত্র লিখিয়া দিলেন।

 এই সময় ইউরোপে যে কি হইতেছিল, তাহার বিষয় দক্ষিণ আফ্রিকার শাসনকর্ত্তা শ্লাইসকেন (Sluys Ken) সাহেব সম্পূর্ণরূপে অনভিজ্ঞ ছিলেন। ১৭৯৫ খৃষ্টাব্দে ইংরাজদিগের সৈন্য সামন্ত সাইমন্‌স উপসাগরে (Symons Bay) আসিয়া উপস্থিত হইলে, সেনাপতিদ্বয় এডমিরাল এলফিনষ্টোন (Admiral Elphinstone) ও মেজর—জেনারেল ক্রেগ (Major—General Craig) সেই পত্র খানি শাসনকর্তার হস্তে অর্পণ করিলেন। ইংরাজগণ যে সেই দেশ অধিকার করিতে আসিয়াছিলেন, তাহা বুঝিতে পারিয়াও কিন্তু ডচ্‌ কোম্পানীর নিয়োজিত শাসনকর্তা শ্লাইসকেন সাহেব, প্রধান সেনাপতি কর্ণেল রবার্ট জেকব গরডন (Colonel Robert Jacob Gordon) ও সৈন্যাধ্যক্ষ লেফটেনেন্ট-কর্ণেল ডি লিলির (Lieutenant Colonel De Lille) সহিত পরামর্শ করিয়া, সেই সকল ইংরাজ সৈন্যগণকে সেই স্থান অধিকার করিতে অনুমতি প্রদান করিলেন।

 সাইমন্‌স উপসাগরে (Symons Bay) ইংরাজ সৈন্য আসিয়া উপনীত হইবার ১৮ দিন পরে সমস্ত সৈন্য সামন্ত