প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:যশোহর-খুল্‌নার ইতিহাস দ্বিতীয় খণ্ড.djvu/৩৭৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কার্ভালো ও পারগণের পরিণাম ৩১৩ তখন প্রাচীন রাজবাটীতে গুপ্তভাবে তাহাকে বা তাহার দলভূক্ত কয়েক জন কাপ্তেনকে হরি শৌণ্ডিকের লোকেরা হত্যা করিয়াছিল, ইহাই প্রবাদের সার মৰ্ম্ম । দুৰ্ব্বত্ত বণিক স্তারান্তায় বাহাই করুক না কেন, তাহার আস্পদ্ধার কথা শুনিয়া প্রতাপাদিত্য অত্যন্ত বিচলিত হন, এবং স্বহস্তে তাহাকে নিধন করিয়া শাস্তিবিধান করেন। কথিত আছে, হরি ধনদৃপ্ত হইয়া ঠাকুরবরকে মানিত না বলিয়া, পীরসাহেব স্বয়ং প্রতাপাদিত্যের সহিত সাক্ষাৎ করিয়া তাহার সমুচিত শাস্তিবিধানের জন্ত উক্তি করেন। ধীৰভাবে বিচার করিয়াই হউক বা ক্রোধের বশবৰ্ত্তী হইয়াই হউক, প্রতাপ হরি শোণ্ডিককে নিধন করিলে, তাহার পরিবারবর্গ রাজভয়ে জলমগ্ন হইয়া মরিয়াছিল। এখনও চারঘাটের উত্তর দিকে যমুনা হইতে বহির্গত চালুন্দিয়া নদীর মোহানার কাছে একটি গভীর স্থানকে লোকে “হরে’ গুড়ির দহ” বলিয়া থাকে। উনত্রিংশ পরিচ্ছেদ-রামচন্দ্রের বিবাহ বাকুলার অধীশ্বর ৮কন্দৰ্প নারায়ণের পুল্ল রামচন্দ্রের সহিত প্রতাপাদিত্যের কন্তর বিবাহ-প্রস্তাব পুৰ্ব্ব হইতেই স্থির ছিল ; পুত্রকন্ত উভয়ে তখন নিতান্ত শিশু বলিয়া বিবাহ হয় নাই ; এ কথা পূৰ্ব্বে উল্লিখিত হইয়াছে। সম্ভবতঃ ১৬০২ খৃঃঅন্ধের শেষভাগে রাণী পুত্রের বিবাহের উদ্যোগ করির দিনন্থির করেন ; . কারণ এসময়ে প্রতাপের কন্যা বিমলা বা বিন্দুমভীর* বয়স দ্বাদশ বর্ষ হইয়াছিল ; ৫ খৃষ্টকঙ্কারিকায় প্রতাপের কস্তার নাম ৰিন্দুমতী বলিয়াই লিখিত হইয়াছেঃ - “স্বশোহরেশ্ব.র মানী প্রতাপস্ত ভুক্তি রং বিন্দুমতীং মহাসভায়ুপথেমে নৃপোত্তমঃ"। তদনুসারে শাস্ত্রী মহাশয় ও নিখিল বাবু ধিন্দুমতী নামই গ্রহণ করিয়াছেন, এবং তাছাদের DBD DDDBB BBB DDD DDD DBBDD DBB BBB SSBBBB BBBDS DDDD BBBB BB BBB BBB SBBBBBS BBB B BB BBBD Dtt DD DDD ৰিজুমতী নামই প্রদত্ত হইয়াছে। প্রবাদ-মূখে ও অনেক স্থলে এই নাম শুনিতে পাওয়া ব্য। मशंकबि ब्रशैौछनप्शिग्न “वॐ ?ाकूद्रानौब्र शरछे"ल बिछ व विलांबडी नांव शृंशैछ इ३ब्राहिल । DD DDDS LDDDDD g gDD DDB DEttTSBBBBBBBB SBDDD DDD SDD 8 w