পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অষ্টম খণ্ড) - সুলভ বিশ্বভারতী.pdf/১৭৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Głbr ২৮ ফাল্গুন ১৩৩৮ ब्रदोश्न-द्रष्कादी সেদিন বুঝিতে পারে মন ছিল সে-যে নিশ্চেন্তন তুচ্ছতার অন্তরালে এতকাল মায়ানিদ্রাজালে । তার দৃষ্টিপাতে মোরে নূতন সৃষ্টির ছোওয়া লাগে, চিত্ত জাগে - বলি তার পদযুগ চুমি, ‘রাজপুত্ৰ তুমি এতদিন আত্মপরিচয়হীন জড়তার পাষাণপ্ৰাচীর দিয়ে ঘেরা দুগা-মাঝে রেখেছিল প্ৰত্যহের প্রথার দৈত্যেরা । কোন মন্ত্রগুণে সে দুৰ্ভেদ বাধা যেন দাহিলে আগুনে, করি নিলে আপনার, নিয়ে গেলে মুক্তির আলোকে । আজিকে তোমারে দেখি কী নূতন চোখে । বার বার মন বলে, “রাজপুত্ৰ তুমি ।” অগ্রদূত হে পথিক, তুমি একা । আপনার মনে জানি না কেমনে eta-शान्त (ecaत चयों । যে পথে পড়ে নি। পায়ের চিহ্ন সে পথে চলিলে রাতে আকাশে দেখেছি কোন সংকেত, কারেও নিলে না। সাথে । তুঙ্গগিরির উঠিছ শিখরে CON OS VO অসীম আলোকে করিছে আপনি QCSS D 2 | প্ৰথম যেদিন ফান্থনতাপে নবনিকারি জাগে, মহাসুদূরের অপরাপ রূপ দেখিতে সে পায় আগে ।