পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অষ্টম খণ্ড) - সুলভ বিশ্বভারতী.pdf/২৬৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পুনশ্চ RC2 একটু পরেই পালা হল শেষ আকাশ নিকিয়ে গেল কে । কৃষ্ণপক্ষের কৃশ চাদ যেন রোগশয্যা ছেড়ে ক্লান্ত হাসি নিয়ে অঙ্গনে বাহির হয়ে এল । বলে, এই আমার যত দেখার টুকরো চাই নে হারাতে । আমার সত্তর বছরের খেয়ায় তারা পার হয়ে গেছে অদৃশ্যে । তার মধ্যে দুটি-একটি কুঁড়েমির দিনকে পিছনে রেখে যাব ছন্দো-গাথা কুঁড়েমির কারুকাজে, তারা জানিয়ে দেবে আশ্চৰ্য্য কথাটি একদিন আমি দেখেছিলেম। এই সবা-কিছু । 8 V S Vova সুন্দর প্লাটিনমের আঙটির মাঝখানে যেন হীরে । আকাশের সীমা ঘিরে মেঘ, হুহু করে বইছে হাওয়া, পেপেগাছগুলোর যেন আতঙ্ক লেগেছে, উত্তরের মাঠে নিমগাছে বেধেছে বিদ্রোহ, তালগাছগুলোর মাথায় বিস্তর বকুনি । বেলা এখন আড়াইট । ভিজে বনের ঝলমলে মধ্যাহ্ন উত্তর দক্ষিণের জানলা দিয়ে এসে জুড়ে বসেছে আমার সমস্ত মন । জানি নে কেন মনে হয় এই দিন দূর কালের আর-কোনো একটা দিনের মতো । এরকম দিন মানে না কোনো দায়কে, এর কাছে কিছুই নেই জরুরি, বর্তমানের নোঙর-ছেড়া ভেসে-যাওয়া এই দিন । একে দেখছি যে অতীতের মরীচিকা বলে সে অতীত কি ছিল কোনো কালে কোনোখানে, সে কি চিরযুগেরই অতীত নয়। প্ৰেয়সীকে মনে হয়। সে আমার জন্মান্তরের জানা যে কালে স্বৰ্গ, যে কালে সত্যযুগ, যে কাল সকল কালেরই ধরা-ছোওয়ার বাইরে ।