পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অষ্টম খণ্ড) - সুলভ বিশ্বভারতী.pdf/৩১৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পুনশ্চ Ridd জন্ম একটা হয়েছিল বটে প্ৰমাণ পেয়েছি, সন্দেহ নেই । এর আগে তো জন্মও দেখেছি, মৃত্যুও মনে ভাবতেম। তারা এক নয় । কিন্তু এই—যে জন্ম এ বড়ো কঠোরদারুণ এর যাতনা, মৃত্যুর মতো, আমাদের মৃত্যুর মতোই । এলেম ফিরে আপনি আপন দেশে, এই আমাদের রাজত্বগুলোয় । আর কিন্তু স্বস্তি নেই। সেই পুরানো বিধিবিধানে যার মধ্যে আছে সব অনামীয় আপন দেবদেবী আঁকড়ে ধরে । আর-একবার মরতে পারলে আমি বঁাচি । [ ] S७७० } চিররাপের বাণী প্ৰাঙ্গণে নামল অকালসন্ধ্যার ছায়া সূর্যগ্রহণের কালিমার মতো । উঠল ধবনি ; খোলো দ্বার ! প্ৰাণপুরুষ ছিল ঘরের মধ্যে, সে কেঁপে উঠল। চমক খেয়ে । BBB uO DBDD DDLDDS কম্পিত্যকণ্ঠে বললে, কে তুমি । মেঘমন্দ্ৰ-ধ্বনি এল ; আমি মাটি-রাজত্বের দূত, সময় হয়েছে, এসেছি মাটির দেনা আদায় করতে । ঝন ঝন বেজে উঠল দ্বারের শিকল, থর/থার কাপল প্রাচীর, হায়-হায় করে ঘরের হাওয়া । নিশাচরের ডানার ঝাপট আকাশে আকাশে নিশীথিনীর হৎকম্পনের মতো । ধকধক ধকধক আঘাতে খানখান হল দ্বারের আগল, কপাট পড়ল ভেঙে । কম্পমান কণ্ঠে প্ৰাণ বললে, হে মাটি, হে নিষ্ঠুর, কী চাও তুমি ? দূত বললে, আমি চাই দেহ। দীর্ঘনিশ্বাস ফেললে প্ৰাণ ; বললে : এতকাল আমার লীলা। এই দেহে, এর অণুতে অণুতে আমার নৃত্য, নাড়ীতে নাড়ীতে ঝংকার,